Menu

আন্তনগর লালমনি ও রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিট না থাকায় সরকার হারাচ্ছে রাজস্বঃ ফায়দা লুটছে টিকিট পরিদর্শক

বদিউদ-জ্জামান মুকুলঃ উত্তরাঞ্চলে রেল ভ্রমনকারী যাত্রীদের আন্তনগর ট্রেনের টিকিট না থাকায় বিড়ম্বনার স্বীকার হতে হচ্ছে। এমনকি আন্তনগর লালমনি এক্সপ্রেস ও রংপুর এক্সপ্রেসে যাতায়াত করতে গিয়ে টিকিট পরিদর্শক ও রেল পুলিশের নিকট নাজেহাল হতে হচ্ছে রেলযাত্রীদের।

 

এমনকি রেলে ভ্রমন পিপাসু স্কুল কলেজ গামী ছাত্রছাত্রীদের নিকট থেকে নেয়া হচ্ছে মোটা অংকের টাকা। টাকা না দিলে তাদের সাথে করা হচ্ছে দূব্যবহার (অশালীন আচরণ)। এমনকি সিট থেকে তুলে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

 

আন্তনগর লালমনি ও রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনে যাতায়াতের ক্ষেত্রে উত্তরাঞ্চলের কোন ষ্টেশনে লোকাল টিকিট নেই। রংপুর ও ঢাকা ছাড়া কোন ষ্টেশনে যাতায়াতের ক্ষেত্রে রেল ষ্টেশন মাষ্টারদের হাতে টিকিট সরবরাহ করা হয়নি। এমনটি অবস্থায় উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন ষ্টেশন থেকে এ সকল ট্রেনে যাতায়াতের ক্ষেত্রে রেল যাত্রীদের ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

 

এমনকি জরুরী কাজ, রোগী পরিবহন কিংবা কলেজে যাতায়াতের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদেরকে নানা ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

 

গতকাল বুধবার কথা হয় কয়েকজন আন্তনগর ট্রেন ভ্রমনকারী যাত্রীদের সাথে। বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের ঠাকুরপাড়া গ্রামের গাইবান্ধা কৃষি কলেজ পড়–য়া ছাত্রী সুরাইয়া আকতারের সাথে। সে জানায় সোনাতলার প্রায় দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী গত মঙ্গলবার গাইবান্ধা কৃষি কলেজে এ্যাসাইনমেন্ট জমা দেওয়ার জন্য যায়।

 

সেখান থেকে সোনাতলা আসার উদ্দেশ্যে আন্তনগর লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিটের জন্য ষ্টেশন মাষ্টার আবুল কাশেমের নিকট যায়। ষ্টেশন মাষ্টার জানান, আন্তনগর ট্রেন লালমনি ও রংপুর ট্রেনের লোকাল কোন টিকিট নেই। উপায় না পেয়ে বিনা টিকিটে লালমনি একপ্রেস ট্রেনে ওঠে। তারা ছিল বেশ কয়েকজন। ট্রেনের মধ্যে ৬/৭ জন টিকিট পরিদর্শক তাদের নিকট ৩শ’ টাকা দাবি করে। তাদের দাবিকৃত ৩শ’ টাকা দেওয়ার পরও ট্রেনের আসন (সিট) থেকে তাদের তুলে দেয় এবং দুব্যবহার করে।

 

একই উপজেলার তেকানী এলাকার মোকারম হোসেন নামের একজন জানান, গাইবান্ধা থেকে সোনাতলায় আসতে তার নিকট থেকে দেড়শ’ টাকা ট্রেনের মধ্যে নেওয়া হলেও কোন রশিদ দেওয়া হয়নি।

 

এক শ্রেণির স্বার্থনেষী মহল আন্তনগর ট্রেনে যাতায়াতকারী যাত্রীদের নিকট ফায়দা লুটলেও সরকার হারাচ্ছে মোটা অংকের রাজস্ব।

 

এ বিষয়ে গাইবান্ধা ষ্টেশন মাষ্টার আবুল কাশেমের সাথে যোগযোগ করা হলে তিনি জানান, উত্তরাঞ্চলে এ সকল ষ্টেশনে আন্তনগর ট্রেনের টিকিট নেই। শুধুমাত্র রংপুর ও ঢাকা যাতায়াতকারী যাত্রীদের বিক্রি করা হয়। অন্যযাত্রীদের জন্য ভ্রমনের ৫ দিন পূর্বে অন লাইনে টিকিট কাটার সুযোগ রয়েছে।

No comments

Leave a Reply

20 + twelve =

সর্বশেষ সংবাদ