Menu

উচ্ছেদে জন্য অভিযোগ দিয়েও কাজ হচ্ছেনা গাবতলীর জামিরবাড়িয়া হাটের অবৈধ স্থাপনা

মোঃ আমিনুর ইসলাম-গাবতলী (বগুড়া) প্রতিনিধি: বগুড়ার গাবতলীতে জামিরবাড়িয়া হাটের অর্ধেক জমিতে অবৈধ স্থাপনায় ভরেগেছে। ফলে হাটে গলি সরু হওয়ায় যানবাহন না ঢোকার কারনে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা ব্যাপক লোকশানের মুখে পড়েছে।
জানাগেছে, ১ একর ৭৭ শতাংশ জমির উপর, প্রায় একশ বছরের পুরনো উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের জামিরবাড়িয়া হাট ঐতিহ্যের সাথে স্থানীয় ব্যবসায়ীসহ দুরের ব্যবসায়ীরা এখানে ব্যবসা করতো।  এলাকার কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ীরা হাটের প্রায় অর্ধেক জমি অবৈধভাবে দখল করে বিভিন্ন ধরনের স্থায়ী দোকান ঘর নির্মান করে অন্যত্র ভাড়া দিয়েছে। এর কারনে এই হাটে আগের মত জায়গা না থাকায় বড় ধরনের ব্যবসায়ীরা তাদের পসরা বিছাতে পারেনা। এর কারনে ঐ ব্যবসায়ীরা আর এই হাটে আসেনা। এছাড়াও হাটের দক্ষিনপার্শ্বে স্থানীয় প্রভাবশালী কিছু ব্যাক্তি হাটের জায়গা দখল করে পাকারাস্তা সংলগ্ন স্থায়ী পাকা দোকান নির্মান করেছে। ওই সকল অবৈধ স্থাপনার কারনে হাটে ঢোকার গলি সরু হয়ে গেছে। ফলে মালামাল আনা নেয়ার জন্য কোন ভ্যানগাড়ীসহ অন্যান্য গাড়ি না ঢোকার কারনে ব্যবসায়ীরা তাদের মামলামাল হাটে আনতে পারেনা।
হাটের ইজারাদার আব্দুর রশিদ প্রাং জানান, জামিরবাড়িয়া হাটের জমিতে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা স্থাপনা উচ্ছেদ করতে উপজেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে একাধিকবার লিখিত অভিযোগ দেয়া হলেও কোন কাজ হয়নি। এভাবে হাটের জায়গা দখল করে অবৈধ স্থাপনা বাড়তে থাকলে ১ থেকে ২ বছরের মধ্য এই জামিরবাড়িয়া হাট বন্ধ হয়ে যাবে বলে তিনি আশংকা করেন। অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য ইজারাদার আব্দুর রশিদ, গাবতলী উপজেলা চেয়ারম্যান, নির্বাহি অফিসার ও সহকারী কমিশনার (ভুমি)’র সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেছেন।

No comments

Leave a Reply

ten + 18 =

সর্বশেষ সংবাদ