Menu

কাহালুতে স্বামীর সংসারে ঠাই না হওয়ায় গৃহবধুর আত্নহত্যা

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (মুনসুর রহমান তানসেন, কাহালু): স্বামীর সংসারে ঠাই না হওয়ায় মনের কষ্টে ও অভিমানে গত রোববার কাহালু উপজেলার ঢাকন্তা গ্রামে পিতার বাড়িতে বিষপানে আতœহত্যা করেছে নুরুন্নাহার (১৯) নামের এক গৃহবধু।

জানা গেছে প্রায় ১ বছর আগে ঢাকন্তা গ্রামের নুর ইসলামের কন্যা নুরুন্নাহারকে উপজেলা হাটুরপাড়া গ্রামের মোহাম্মদ আলীর পুত্র ফারুক হোসেন (২২) বিয়ে করে। নুর ইসলাম জানান, বিয়ে হওয়ার মাত্র ৪ মাসের মাথায় মৃরকি ব্যারামের কথা বলে নুরুন্নাহারকে তার স্বামী ও শশুড়ালয়ের লোকজন পিতার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

এরপর থেকে আর নুরুন্নাহারের কোনো খোজ-খবর নেয়নি তার স্বামী। বিষটি নিয়ে স্থানীয়ভাবে দেন-দরবারও হয়েছে। দেন-দরবারে নুরুন্নাহারের ডাক্তারী পরীক্ষার কথা বলা হলেও কোন কর্ণপাত করেনি তার স্বামী ফারুক। যারফলে নুরুন্নাহার মানষিক রোগী হয়ে পড়ে।

গত রোববার সকাল ৮টার দিকে সবার অজান্তে নুরুন্নাহার তার পিতার বাড়িতে বিষপানে বিষের যন্ত্রনায় কাতরাতে থাকলে তাকে প্রথমে কাহালু হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থা বেগতিক দেখে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেলা ১১ টার দিকে নুরুন্নাহার মারা যান।

এব্যাপারে ফারুকের পিতা মোহাম্মদ আলীর সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলা হলে তিনি বলে মেয়েটির মৃরকি ব্যারাম তাকে নিয়ে কিভাবে সংসার করবে আমার ছেলে। যদি হটাৎ করে কোনো দুর্ঘটনা ঘটে সেই জন্য তাকে তার পিতার বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

এব্যাপারে কাহালু থানার এস আই ডেভিড হিমাদ্রী বর্মা জানান, এঘটনায় বগুড়া সদর থানায় ইউডি মামলা হয়েছে।

No comments

Leave a Reply

one + 2 =

সর্বশেষ সংবাদ