Menu

কাহালুর জাতীয় স্বর্ণ-রৌপ্য প্রদক প্রাপ্ত মাছচাষী শফিকুলের ধ্যান-জ্ঞান শুধু দেশীয় রেনু-পোনা উৎপাদনে

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (মুনসুর রহমান তানসেন, কাহালু): কঠোর পরিশ্রম আর মানুষের ইচ্ছে শক্তি দিয়ে স্বপ্নের ঠিকানায় পৌছে যায়। কাহালুর বিবিরপুকুর বাজারের আলহাজ্ব মোঃ শফিকুল ইসলাম তেমনি একজন মানুষ।

যার কর্মময় জীবন জুড়েই রয়েছে মাছচাষ ও মাছের রেনু-পোনা উৎপাদনের উপর সবচেয়ে বড় ধ্যান-জ্ঞান। কঠোর পরিশ্রম আর নিজের ইচ্ছে শক্তি দিয়ে আলহাজ্ব মোঃ শফিকুল ইসলাম তার স্বপ্নের সিঁড়িতে পৌছে গেছেন অনেক আগেই।

মাছচাষ ও রেনু-পোনা উৎপাদনে তিনি পেয়েছেন জাতীয় স্বর্ণ ও রৌপ্য প্রদকসহ অনেক পুরুস্কার। যখন দেশী প্রজাতির মাছের সহজে দেখা মেলেনি তখন শফিকুল ইসলাম এখানে দেশীয় প্রজাতি মাছের রেনু-পোনা উৎপাদনের উদ্যোগ নেন।

তার উদ্যোগ অল্প সময়ের মধ্যেই সফল হয়েছে। শুধু তাই নয় দেশবাসীকে দেশীয় প্রজাতি মাছের স্বাদ আস্বাদনের জন্য সব সময়ের জন্য তিনি প্রস্তুত রয়েছেন। ইতিমধ্যে পর পর দু-বার দেশের মধ্যে শ্রেষ্ঠ রেনু-পোনা উৎপাদনকারীর তালিকায় তার নাম উঠেছে।

এখন দেশীয় প্রজাতি মাছের উন্নতমানের রেনু-পোনা উৎপাদনে এই অঞ্চলে তার বড় ধরনের সফলতা রয়েছে। দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে তিনি এখন দেশী প্রজাতি মাছের উন্নতমানের রেন পোনা উৎপাদন করে নিজের চাহিদা মিটিয়ে দেশের অধিকাংশ জেলায় মাছচাষিদের কাছে সরবরাহ করছেন।

এই অঞ্চলে একমাত্র শফিকুল ইসলামের মাধ্যমেই দেশীয় প্রজাতি মাছচাষের বিকাশ ঘটেছে। জানা গেছে বর্তমানে দেশীয় প্রজাতি পাবদা, গুলসা, শিং, মাগুড় ও টেংড়া মাছের প্রায় ২৮০০ থেকে ৩০০০ কেজি রেনু উৎপাদন হয় শফিকুলের হ্যাচারীতে।

দিন দিন দেশীয় প্রজাতি মাছের চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠায় শফিকুল ইসলাম দেশীয় প্রজাতি মাছের রেনু উৎপাদনের জন্য তার হ্যাচারী আরো বর্ধিত করেছেন। আগামী মৌসুমে তার হ্যাচারীতে রেনু উৎপাদন কয়েক গুন বেশী হবে বলে স্থানীয় মাছচাষিরা ধারনা দিয়েছেন।

কঠোর পরিশ্রমী এই শফিকুল ইসলাম নিজ এলাকা ছাড়াও দেশের অধিকাংশ জেলায় ছড়িয়ে দিচ্ছেন দেশীয় প্রজাতি মাছচাষ। দেশী প্রজাতি মাছচাষ লাভজনক হওয়ায় মাছচাষের আগ্রহ বাড়ছে সকল মানুষের মধে। উপজেলা মৎস্য অফিস ও স্থানীয় মাছচাষির মতে কঠোর পরিশ্রম, সততা ও অভিজ্ঞতা শফিকুলকে অনেক দুর পৌছে দিয়েছে।

অনেকের মতে শফিকুলের দেখানো পথ ধরেই এখানে প্রায় বিলুপ্ত হওয়া দেশী প্রজাতি মাছচাষ অনেকেই শুরু করেছেন। তথ্যমতে ৬/৭ বছর আগে খাদ্য মুল্য বেশী, মাছের বাজার মুল্য কমসহ নানাবিধ সমস্যায় এখানে অধিকাংশ মাছচাষি কিছুটা লোকসানের মুখে পড়েছিলেন।

লোকসানের মুখে পড়ে অনেকে মাছচাষে আগ্রহ হারিয়ে ফেলছিলেন। সেই সময় শফিকুল ইসলাম রেনু-পোনা উৎপাদন করে চাষিদের দেশী প্রজাতির মাছচাষে বেশী করে উদ্বুদ্ধ করেন। যারফলে এখানে বিদেশী ও বাংলা মাছচাষের পাশিপাশি ব্যপকভাবে দেশী প্রজাতি মাছের চাষ শুরু হয় ।

এদিকে শফিকুলের দেখাদেখি অত্র উপজেলার ছোট-বড় ১৭ টি হ্যাচারীর মধ্যে প্রায় সব গুলোতেই উৎপাদিত হচ্ছে দেশী প্রজাতি মাছের রেনু-পোনা। অনেকের মতে দেশী প্রজাতি মাছচাষ ও রেনু-পোনা উৎপাদনে উত্তরাঞ্চলে শফিকুল ইসলাম অনেক বেশী এগিয়ে রয়েছেন।

এদিকে স্থানীয় মৎস্য কর্মকর্তা, মাছচাষি, রাজনৈতিক নেতা ও বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তার মুখে রয়েছে দেশী প্রজাতি মাছচাষে শফিকুল ইসলামের অভিজ্ঞতা ও অবদানের প্রশংসা। অনেক মতে শফিকুল ইসলামের মত মানুষরা দেশের অর্থনীতিতেও রাখছেন বড় ধরনের সহায়ক ভুমিকা ।

সংশি¬ষ্ট সুত্রমতে দেশী প্রজাতি মাছের রেনু-পোনা উৎপাদনের জন্য শফিকুলের হ্যাচারীতে রয়েছে ১০২ টি হাউজ ও প্রায় ৩০ টি বোতল। শুধুমাত্র দেশী প্রজাতি মাছের রেনু-পোনা উৎপাদনের জন্য মজুদ রাখা হয়েছে প্রায় ৩০/৩৫ মেঃটন ব্র“ড মাছ।

আগামী মৌসুমে এই হ্যাচারীতে ৫ হাজার কেজি দেশী প্রজাতি মাছের রেনু উৎপাদনের টার্গেট রয়েছে। এই হ্যাচারীতে কর্মরত আশরাফ আলী জানান, দেশের প্রায় সকল জেলাতে আমরা দেশী প্রজাতি মাছের রেনু-পোনা সরবরাহ করছি।

তারমতে দেশী রেনু-পোনা ছাড়াও এখানে বিদেশী ও বাংলা প্রায় সকল প্রকার মাছের রেনু-পোনা উৎপাদন হয় । আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম জানান, মানব দেহের স্বাস্থ্যের যাতে কোনো ক্ষতি না হয়, তার জন্য আমরা স্বাস্থ্য সম্মতভাবে মাছের চাষ করছি। এই গুণী মাছচাষির মতে ফিড মিল গুলোতে সরকারি নজরদারী রাখা উচিত। যাতে মানব দেহের ক্ষতিকারক মাছের খাদ্য তারা তৈরী করতে না পারে।

তারমতে আমাদের দেশে আরো বেশী করে মাছের উৎপাদন বাড়াতে হলে সরকারি খাল, বিল, পুকুর ও জলাশ্বয় গুলো সংস্কার ও খনন করা জরুরী হয়ে পড়েছে। সরকারিভাবে দ্রুত এই প্রদক্ষেপ নিলে সরকারি রাজস্ব আয় বৃদ্ধিসহ মাছের উৎপাদন অনেক বেশী হবে।

উপজেলা সিনিয়ার মৎস্য কর্মকর্তা ইরিনা মৌসুমী জানান, একজন গুণী ও অভিজ্ঞ রেনু-পোনা উৎপাদনকারী শফিকুল ইসলাম। তারমতে শফিকুলের কাছে মাছচাষি, নার্সারী ও হ্যাচারী মালিকদের শেখার অনেক কিছু আছে।

No comments

Leave a Reply

14 − one =

সর্বশেষ সংবাদ