Menu

কাহালু পৌরসভা নির্বাচন সামনে রেখে মাঠে নেমেছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (মুনসুর রহমান তানসেন, কাহালু প্রতিনিধি): কাহালু পৌরসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে সম্ভাব্য মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা ও পদচারণায় পৌর এলাকার প্রতিটি পাড়া, মহল্লা এবং ওয়ার্ড এখন মুখরিত হয়ে হয়ে উঠেছে।

নির্বাচনকে সামনে রেখে তারা কোমর বেঁধে মাঠে নেেেম পড়েছেন। প্রধান দু-দল আওয়ামীলীলীগ বিএনপির মনোনয়ন কে পাচ্ছেন তা নিয়ে দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ ভোটারদের মধ্যে চলছে চুলছেঁড়া বিশ্লেষন।

আওয়ামীলীগের দুজন ও বিএনপির তিনজন মেয়র পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীকে গণসংযোগ ও মাঠে-ময়দানে রদখা গেলেও অন্য কোন দলের মেয়র পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীর না এখনো শোনা যায়নি।

তবে আওয়ামীলীগ-বিএনপি ছাড়াও বিভিন্ন দলের অনুগত সম্ভাব্য সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীরাও প্রচার-প্রচারণায় মাঠে রয়েছেন। আবার দলীয় অনুগত ছাড়াও সভাব্য সতন্ত্র প্রার্থীদেরও সরব উপস্থিতি লক্ষ করা গেছে।

আওয়ামীলীগ ও বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীরা নিয়মিত গণসংযোগের পাশাপাশি মনোনয়ন লড়াইয়ে শীর্ষ নেতাদের সাথে রাখছেন নিবিড় সম্পর্ক ও যোগাযোগ।

ইতিমধ্যে সম্ভাব্য প্রার্থীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আগামী পৌর নির্বাচনের জন্য দোয়া চেয়ে নিজেদের ছবি দিয়ে পোস্ট দিয়েছেন। অনেকে ওয়াড, পাড়া ও মহল্লায় টাঙ্গিয়েছে ব্যানার, ফেস্টুন, এবং পোস্টাল। অনেকে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে বাড়ি বাড়ি গিয়ে দোয়া কামনা করছেন।

তারা পুরোদমে চালাচ্ছেন গণসংযোগ ও প্রচারণা। কৌতুহলী জনতাও বসে নেই, তারাও চায়ের স্টল, হোটেল,-রেস্তোরায় মাঠে থাকা সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে আলোচনা-সমালোনায় মশগুল।

ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের মনোনয়ন লড়াইয়ে আছেন দলীয় মনোনয়নে পর পর দু’বারের নির্বাচিত মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ হেলাল উদ্দিন কবিরাজ। তিনি তৃতীয় বারের মত দলীয় মনোনয়নে আগামী নির্বাচনেও প্রার্থী হতে চান।

তিনি জানান, দলীয় মনোনয়নে আমি দু’বার মেয়র নির্বাচিত হয়ে রাস্তা-ঘাট, ড্রেন, ব্রীজ-কালভার্ট, ধর্মীয়-শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন স্থানে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল, যাত্রী ছাউনীসহ নাগরিক সুবিধা বৃদ্ধির জন্য ব্যাপক উন্নয়ন মূলক কাজ করেছি।

আমি আওয়ামীলীগের পরীক্ষিত নেতা হিসেবে সুখে-দুঃখে দলীয় নেতাকর্মিদের পাশে রয়েছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে ও পৌরসভার অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করার জন্য আগামী নির্বাচনেও দলীয় মনোনয়নের ব্যপারে আমি শতভাগ আশাবাদী।

এদিকে আগামী নির্বাচনে মেয়র পদে নির্বাচনের টার্গেট নিয়ে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন লড়াইয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান কোমর বেঁধে মাঠে-ময়দানে রয়েছেন। তিনি জানান, গত উপজেলা নির্বাচনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া মনোনয়নে আমি নৌকা প্রতিক নিয়ে উপজেলা নির্বাচনে অংশ গ্রহন করি।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নৌকার পক্ষে ভোট না করে বিদ্রোহী প্রার্থী তার ছেলের পক্ষে ভোট করেছে। তাদের কারণে আমি জনপ্রতিনিধি হতে না পারলেও দলীয় সিদ্ধান্তের বাহিরে কোনদিন যায়নি।

এখানে জননেত্রী শেখ হাসিনার চলমান উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড যাতে সঠিকভাবে বাস্তবায়ন হয়, সেই ব্যাপারে আমি সব-সময় ভুমিকা রেখেছি।

আমি আওয়ামীলীগের পরীক্ষিত নেতা হিসেবে সুখে-দুঃখে দলের নেতাকর্মিদের পাশে রয়েছি। যারফলে আগামী পৌর নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী।

অপরদিকে দীর্ঘদিন ধরে ক্ষমতার বাহিরে থাকা বিএনপির নেতাকর্মিরা আগামী পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে তারাও মাঠে ময়দানে রয়েছেন।

বিএনপি দলীয় এমপি আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন ইতিমধ্যে পৌর এলাকায় বিভিন্ন সভা-সমাবেশ দলীয় প্রার্থীর যাতে বিজয়ী হয় সেই ব্যাপারে নেতাকর্মিদের তাগাদা দিচ্ছেন। আগামী পৌর নির্বাচনকে ঘিরে বিএনপির নেতা-কর্মিরা দলীয় কর্মকান্ডে সক্রিয় হচ্ছে।

বিএনপির মনোনয়ন লড়াইয়ে রয়েছেন বিএনপি নেতা আব্দুল মান্নান (ভাটা)। তিনি জানান, বিএনপির মনোনয়নে আমি দু’বার নির্বাচন করেছি। দল ক্ষমতায় না থাকাসহ নানা প্রতিবন্ধকতায় আমি সামান্য ভোটে পরাজিত হয়েছি। পরাজিত হলেও আমি পৌরবাসীর সুখে-দুঃখে পাশে রয়েছি। পর পর দু’বার নির্বাচন করায় আমার প্রতি পৌরবাসীর সহানুভুতি বেড়েছে।

বিএনপির আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক ভারপ্রাপ্ত পৌর মেয়র আব্দুল মান্নান জানান, পরিক্ষিত নেতাদের মুল্যায়ন করলে দলীয় মনোনয়ন আমিই পাবো। কারণ আমি এই জনপদে ছাত্রদল, যুবদল ও বিএনপির নেতৃত্ব দিয়েছি। অনেক জুলুম নির্যাতনের শিকার হয়েছি। আমার বিশ্বাস দলীয় মনোনয়ন পেলে ভালো ফলাফল করতে পারবো।

পৌর বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক ও পৌর কাউন্সিলর ফেরদৌস আলমও দলীয় মনোনয়নের জন্য আবেদন করছেন। তিনি জানান, আমি দু’বার কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছি। পৌরবাসীর কাছে আমার ভালো ইমেজ রয়েছে। দলীয় মনোনয়ন পেলে আমি নির্বাচন করবো এবং দলীয় যেকোন সিদ্ধান্ত আমি মেনে নিবো।

No comments

Leave a Reply

17 − four =

সর্বশেষ সংবাদ