Menu

কাহালু পৌর নির্বাচনে নৌকার পরাজয়ে কতিপয় নেতাকর্মীকে দায়ী করে হেলাল কবিরাজের সংবাদ সম্মেলন

কাহালু (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ কাহালু পৌর নির্বাচনে নিজের পরাজয়ের পর গতকাল রবিবার বিকেলে নির্বাচনী ক্যাম্পে সংবাদ সম্মেলন করেন আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ হেলাল উদ্দিন কবিরাজ। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আল হাসিবুল হাসান সুরুজসহ আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সংবাদ সম্মেলনে তার লিখিত বক্তব্যে বলেন আমি আওয়ামীলীগের মনোনয়নে পর পর দুবার মেয়র নির্বাচিত হয়ে বিভিন্ন স্থানে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল, রাস্তা-ঘাটসহ বিভিন্ন উন্নয়ন মুলক কাজ করেছি। যারফলে তৃতীয় বারের মত জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে দলীয় মনোনয়ন দেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি উল্লেখ করেন বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মুনসুর রহমান মুন্নু, কাহালু উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ডাঃ আব্দুল হাকিম, নারহট্ট ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি রুহুল আমিন তালুকদার বেলাল, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি পিএম বেলাল হোসেন, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রাজিব, উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক অঞ্জন কুমার দীর্ঘদিন ধরে পদ নিয়ে আমার বিরোধীতা করে আসছে। গত ৩০ জানুয়ারি কাহালু পৌর নির্বাচনে আমার পরাজিত হবার কোন প্রশ্নই উঠেনা। সাধারণ মানুষ আমাকে ভোট দিয়েছে। কিন্ত দলের উল্লেখিত ব্যক্তিরা ক্ষমতার লোভে আমার প্রতি ঈর্ষান্বিত হয়ে এবং দলীয় কোন্দল সৃষ্ট্ িকরে বিএনপি প্রার্থী আব্দুল মান্নান (ভাটা) এর সাথে হাত মিলিয়ে তারা প্রকাশ্যে আমার বিপক্ষে ও ভাটা মান্নানের পক্ষে প্রচারনা চালায়। ভোটারদের আমার সম্পর্কে ভুল বুঝিয়ে তার পক্ষে কাজ করে আমাকে পরাজিত করে। তারা পৌর নির্বাচনে এভাবে প্রকাশ্যে বেইমানী করে করে আওয়ামীলীগ সরকার ও দলীয় ভাবমূর্তি চরমভাবে ক্ষুন্ন করেছে। বিএনপি-জামাত অধ্য্যুষিত এলাকা থেকে আমি পর পর দুবার নির্বাচিত হয়ে পাথরে ফুল ফুটিয়েছিলাম। অথচ দলের কতিপয় স্বার্থন্বেষী নেতাকর্মীদের কারণে এখানে নৌকা প্রতিকের অমর্যাদা হয়েছে। আমার পরাজয়ে পৌরবাসী চরম হতাশায় পড়ে কেউ মেনে নিতে পারছেনা। আমার পরাজয়ের বিষয়টি কেন্দ্রীয় ও জেলা নেতৃবৃন্দের মাধ্যমে তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য দাবী জানাচ্ছি। এব্যাপারে বগুড়া জেলা কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মুনসুর রহমান মুন্নু জানান, আমি আন্তরিকভাবে নৌকার পক্ষে ভোটারের কাছ ভোট চেয়েছি। উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান জানান, আমরা নৌকার পরাজয়ের বিষয়টি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আপনাদেরকে জানাবো। উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান পিএম বেলাল হোসেন জানান, কেউ প্রমাণ দিতে পারবেনা আমরা নৌকার বিপক্ষে কাজ করেছি।

No comments

Leave a Reply

3 × 3 =

সর্বশেষ সংবাদ