Menu

গাবতলীতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর গুলিতে ৪জন নিহতের ঘটনায় পরিস্থিতি পরিদর্শন করলেন বিভাগীয় কমিশনার

গাবতলী (বগুড়া) প্রতিনিধি ঃ রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার জি.এস.এম জাফরউল্লাহ্ এনডিসি বলেছেন, ৫ই জানুয়ারি ৫ম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বগুড়ার গাবতলীর বালিয়াদিঘী ইউনিয়নের কালাইহাটা ভোট কেন্দ্রে হামলার ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে দোষী ও উস্কানিদাতাদের সনাক্ত করে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি আরো বলেন, সরকার যেখানে বহু টাকা খরচ করে শতভাগ অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্পন্ন করতে কাজ করছে সেখানে কালাইহাটায় ভোট গণনাকে কেন্দ্র করে অধৈর্য হয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা মোটেই ঠিক হয়নি। এতে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার কালাইহাটার বর্তমান সার্বিক পরিস্থিতি পরিদর্শনকালে উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। এ সময় বগুড়া জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট জিয়াউল হক, ঘটনার তদন্তে দায়িত্বপ্রাপ্ত সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (গাবতলী সার্কেল) নাজরান রউফ, বগুড়া সদর ইউএনও সমর পাল, গাবতলীর ইউএনও মোছাঃ রওনক জাহান, বগুড়া সদরের এ্যাসিল্যান্ড নুরুল ইসলাম,

গাবতলীর এ্যাসিল্যান্ড মিজানুর রহমান, মডেল থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম, বালিয়াদিঘী ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি ও নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান ইউনুছ আলী ফকির, সাধারণ সম্পাদক শাহ নেওয়াজ জ্যাকি, কালাইহাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইউসুফ আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ, গত ৫ই জানুয়ারিতে ৫ম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কালাইহাটা ভোট কেন্দ্রে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর গুলিতে ৪জন মারা যান এবং আহত হন কমপক্ষে ৮জন। নিহতরা হলেন, কালাইহাটা গ্রামের ইফাত উল্লাহ প্রামানিকের ছেলে আব্দুর রশিদ (৬০), মকবুলের ছেলে আলমগীর (৪০), ছহির উদ্দিনের ছেলে খোরশেদ (৭০) এবং খোকনের স্ত্রী কুলসুম (৩৫)।

No comments

Leave a Reply

1 × three =

সর্বশেষ সংবাদ