Menu

গাবতলীতে ঈদের দিন প্রেমিকের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে লাশ হলো প্রেমিকা

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (বগুড়া প্রতিনিধি): বগুড়ার গাবতলীতে প্রেমিক বাঁধনের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে লাশ হয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলো স্মৃতি আক্তার (২০) নামের এক প্রেমিকা। ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার ঈদের দিন রাত সোয়া ১১টায় গাবতলীর সোন্দাবাড়ী বড় ফকিরপাড়া মাদ্রাসা মোড়ের ৫০মিটার পূর্বে। এ ঘটনায় নিহতের মামা ও পালক পিতা বাদী হয়ে গত ৬জুন গাবতলী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।
জানা গেছে, বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার ফুলদিঘী উত্তরপাড়া গ্রামের রেজাউল করিমের পালক মেয়ে ও একই গ্রামের নুরে আলম ওরফে আযমের ভাগ্নি স্মৃতি আক্তার (২০) গত ৫জুন ঈদের দিন বিকেলে বান্ধবীর বাড়ীতে বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে বের হয়। এরপর স্মৃতি আক্তার তার প্রেমিক বগুড়া ঠনঠনিয়া পাইকারপাড়া গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে শাকিব হাসান বাঁধনের (২২) সাথে মোটর সাইকেলে সারিয়াকান্দির যমুনা নদী এলাকায় বেড়াতে যায়। তারপর সেখান থেকে বেপরোয়া গতিতে মোটর সাইকেল নিয়ে রাত্রী প্রায় সোয়া ১১টায় বাড়ী ফেরার পথে গাবতলীর সোন্দাবাড়ী বড় ফকিরপাড়া মাদ্রাসা মোড়ের ৫০মিটার পূর্বে পৌছিলে হুন্ডাটি নিয়ন্ত্রন হারিয়ে একটি গাছের সাথে সজোরে ধাক্কা লাগে। এতে করে প্রেমিকা স্মৃতি আক্তারের মাথাসহ বিভিন্নস্থানে গুরুত্বর জখম হয়। সেইসাথে প্রেমিক বাঁধনও গুরুত্বর আহত হয়। পরে রাত্রীকালিন টহলরত পুলিশ তাদের দু’জনকেই গুরুত্বর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে গাবতলী হাসপাতালে পরে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক স্মৃতি আক্তারকে মৃত ঘোষনা করে। আর আহত বাঁধন এখন বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় নিহত স্মৃতি আক্তারের মামা নুরে আলম আযম ও পালক পিতা রেজাউল করিম বাদী হয়ে প্রেমিক বাঁধনকে অভিযুক্ত করে গাবতলী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। এব্যাপারে থানার ওসি সেলিম হোসেনের সঙ্গে কথা বললে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। উল্লেখ্য, নিহত স্মৃতি আক্তার কুড়িগ্রাম উলিপুর গ্রামের মৃত সুজন এর মেয়ে।

No comments

Leave a Reply

18 − two =

সর্বশেষ সংবাদ