Menu

গাবতলীতে গুজব সৃষ্টি করে মন্দির ধ্বংসের পায়তারাঃ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (বগুড়া প্রতিনিধি): বগুড়া গাবতলীর সোনারায় ইউনিয়নের জামিরবাড়ীয়া হাট বারোয়ারি কালিমন্দিরের পার্শ্বে প্রাচীর সংলগ্নস্থানে হাটের পায়ে চলাচলের জায়গায় গত একমাস আগে হঠাৎ কাল্পনিকভাবে সামন্য মাটি ফুলে ওঠে। মাটি ফুলে ওঠায় স্থানীয় কিছু লোকজন বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন রকম গুজব সৃষ্টি করে। এক পর্যায়ে উক্তস্থানে মাজার তৈরীর জন্য অপপ্রচার চালায় এবং ঐ স্থানে চারপাশে খুটি গেড়ে লাল কাপর দিয়ে জায়গাটি ঢেকে নিয়ে স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দিরের কার্যক্রমে ব্যাঘাত সৃষ্টির পায়তারা করছে। এতে করে স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। তাই স্থানীয়দের মধ্যে সম্প্রীতি বজায় রাখতে ওখানকার মাটি পরীক্ষা-নিরীক্ষারা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বগুড়া জেলা প্রশাসক, জেলা পুলিশ সুপার, গাবতলীর ইউএনও এবং ওসিসহ বিভিন্নদপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছে মন্দির কমিটির সভাপতি বিধু ভুষন মন্ডল। এদিকে গতকাল শনিবার সরেজমিনে গেলে স্থানীয় একাধিকসূত্র জানান, উল্লেখিত জায়গার ধারে জনৈক ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে ওষুধের ব্যবসা করে আসছিল। গত একমাস আগে ওই স্থানে দু’দিনে সামন্য মাটি ফুলে ওঠে। তখন একশ্রেণীর মানুষ ওখানে মাজার হবে বলে গুজব সৃষ্টি করে। আরেক একশ্রেণীর মানুষ শীব মন্দির হওয়ার গুজব তোলে। আরো একশ্রেণীর মানুষ বলছে ওখানে মাটির নিচে গ্যাসের সৃষ্টি হয়েছে। এনিয়ে চলে চুলছেরা বিশ্লেষন। এরই মধ্যে স্থানীয় কিছু মাদক সেবী টাউটদের সহযোগিতায় ওখানে দুরদুরান্ত থেকে জটাধারী মানুষ এসে তারা মাজার রুপে দার করিয়ে মানুষের নিকট থেকে দানের অর্থ গ্রহণ শুরু করে। এনিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে উভয়পক্ষকে ডেকে জায়গাটি বাঁশ দিয়ে বেড়া দেয় এবং পরীক্ষা-নিরীক্ষারা না করে পর্যন্ত সকলের প্রবেশ নিষেধ করে দিয়ে আসে।

No comments

Leave a Reply

2 + 14 =

সর্বশেষ সংবাদ