Menu

গাবতলীতে চাচীর সাথে পরকিয়াঃ গলায় ফাঁস দিয়ে ভাতিজার আত্মহত্যা

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (আমিনুর ইসলাম, গাবতলী প্রতিনিধি): বগুড়ার গাবতলীতে প্রতিবেশী চাচীর সাথে পরকিয়া প্রেমের কারণে ঘুমের ঔষধ পান ও গলায় ফাঁস লাগিয়ে ভাতিজার আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরন করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে ৩১ মে বিকেলে চককাতুলি গ্রামে। থানাসূত্রে জানাগেছে, গাবতলী উপজেলার নাড়–য়ামালা ইউনিয়নের চককাতুলি গ্রামের সুলতান আহম্মেদের ছেলে সাগর আহম্মেদ (১৫)’র সাথে প্রতিবেশী জনৈক প্রবাসী চাচীর স্ত্রীর পরকিয়া প্রেম চলে আসছিল। চাচি ভাতিজার মধ্য মোবাইলে অশ্লিল ছবি বিনিময়ের পাশাপাশি তারা উভয়ে পরকিয়া প্রেমে আসক্ত হয়ে পরে। সাগর পেশায় একজন কাঠ ও রং মিস্ত্রী। সাগরের মা জানায় পরকিয়ার বিষয়টি জানাজানি হলে ঘটনার আগের দিন ৩০ মে প্রবাসী মানিকের বাবা ও আত্মীয়রা সাগরকে হত্যাসহ মারার জন্য হুমকি দেয়। এঘটনায় সাগর পাশ্ববর্তী আলতার বাজার এলাকার একটি ঔষধের দোকান থেকে ঘুমের বড়ি কিনে এনে সেবন করে ও নিজ ঘরে তীরের সাথে রশির ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে বলে এলাকাবাসী জানায়। ঘটনার পরথেকে চাচী ও তার পরিবারের লোকজন ঘরে তালাবন্ধ করে পালিয়ে গেছে। পুলিশ সংবাদপেয়ে লাশ উদ্ধারকরে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরন করেছে। ১ জুন শনিবার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার গাবতলী সার্কেল সাবিনা ইয়াসমিন ঘটনারস্থল পরিদর্শন করেছেন। এব্যপারে গাবতলী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সেলিম হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, গলায় ফাঁস লাগানো সাগর নামের একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। থানায় একটি অস্বাভিক মৃত্যু (ইউডি) মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত হত্যার প্রকৃত কারন বলা সম্ভব হবেনা। পরকিয়ারসহ বিভিন্ন বিষয়ে পুলিশ তদন্ত খতিয়ে দেখছে।

No comments

Leave a Reply

4 + five =

সর্বশেষ সংবাদ