Menu

গাবতলীতে জনতা ও পুলিশের সহযোগিতায় অনৈতিক কাজ থেকে রক্ষা পেলো কিশোরী

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (বগুড়া প্রতিনিধি): বগুড়ার গাবতলীতে জনতা ও পুলিশের সহযোগিতায় অপহরণ পূর্বক অনৈতিক কার্যকালাপের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে এক কিশোরী। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার রাত ১১টায় পৌর এলাকায়। এ বিষয়ে ভিকটিম প্রিয়া মনি বাদী হয়ে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছে।
জানা গেছে, কুমিল্লা জেলার দেবিদ্বার থানাধীন ঘোনাইগর গ্রামের বাসিন্দা বর্তমানে ঢাকা আশুলিয়ার টংগাবাড়ী এলাকার ভাড়াটিয়া অলিউল্লাহর মেয়ে  গত ৮মে গাবতলীর চাকলা গ্রামে তার নানা টুকু প্রাং বাড়ীতে বেড়াতে আসে। ওই কিশোরী গত সোমবার বিকেলে বগুড়া শহরে যায়। শহরে কেনাকাটা শেষ হলে হঠাৎ বৃষ্টি আসে। বৃষ্টি শেষে রাত ১০টায় চেলোপাড়া থেকে বাড়ী আসার উদ্দেশ্যে সিএনজিতে ওঠে। ওই সিএনজিতে অপর আরও ৩জন যাত্রী ওঠে। পরে গাবতলীর উদ্দেশ্যে রওনা দিলে পতিমধ্যে সাবগ্রাম থেকে আরও একজন যাত্রী বেশে ওঠে। এরপর সাবগ্রাম থেকে গাবতলী আসার পতিমধ্যে মেয়েটি অপহরণ পূর্বক অনৈতিক কাজের জন্য আমার মুখ চেপে ধরে টানা হেচরা শুরু করে। আমি চিৎকার করিলে তারা আরও জোরে মুখ চেপে ধরে। এ সময় গাবতলী তিনমাথার মোড়ের কাছাকাছি পৌঁছিলে আমি আরও জোরে চিৎকার দেই। আমার চিৎকারে বাজারে থাকা লোকজন সিএনজিটি থামানোর চেষ্টা করলে সিএনজিটি ঘুরিয়ে আবারও বগুড়ার দিকে রওনা দেয়। তখন যুবলীগ নেতা মনির ইসলাম পিপুলসহ স্থানীয় জনতা সিএনজিটিকে ধাওয়া করে পৌর সদরের খলিশাকুড়া ব্রীজের উপর থেকে অপহরণকারীদের সিএনজির গতিরোধ করে সিএনজিসহ ৩জনকে আটক এবং কিশোরীকে উদ্ধার করে। পরে খবর পুলিশ আটককৃতদের থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার প্রিয়া মনি বাদী হয়ে গাবতলী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছে। অভিযুক্ত আটককৃতরা হলো গাবতলীর চাকলা মধ্যপাড়া গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে মোমিনুল ইসলাম (২৩), খলিশাকুড়া উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত জালাল মন্ডলের ছেলে তারেক রহমান (২৫) এবং উনচুরখী কালুরবাজার দক্ষিণপাড়া গ্রামের মুকলু মন্ডলের ছেলে হোসেন আলী (২২)। এ ব্যাপারে থানার ওসি সেলিম হোসেনের কথা বললে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

No comments

Leave a Reply

13 + 15 =

সর্বশেষ সংবাদ