Menu

গাবতলীতে জ্বিনের কাছ থেকে টাকা পাইয়ে দেয়ার লোভ দেখিয়ে অর্থ নিয়ে আত্মসাতঃ প্রতারক মহিলা গ্রেফতার। সোনাতলা সংবাদ

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (সাব্বির হাসান): বগুড়ার গাবতলীতে জিনের টাকা পাইয়ে দেয়ার লোভ দেখিয়ে ১লাখ ৭০হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে শাবলি নামের এক মহিলা প্রতারক। পরে অত্যান্ত সুকৌশলে ওই মহিলাকে পাকড়াও করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনগন।

গত সোমবার উপজেলার রামেশ্বরপুর ইউনিয়নের তেজঁপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় প্রতারনা ও বিশ্বাস ভঙ্গ অপরাধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলা ও পুলিশসূত্র জানায়, বগুড়া সদর উপজেলার লাহিরীপাড়া ইউনিয়নের কেরুলিয়া গ্রামের আতাউর রহমানের স্ত্রী শাবলি বেগম (৩২) গত মাসের ১১আগষ্ট গাবতলীর রামেশ্বরপুর ইউনিয়নের তেজঁপাড়া গ্রামের জাকির হোসেনের বাড়ীতে আসে। এরপর জাকির হোসেনের স্ত্রী রঞ্জনা বেগমকে জ্বিনের কাছ থেকে বিপুল পরিমান টাকা পাইয়ে দেয়ার কথা বলে গত ১১আগষ্ট প্রথমে ৮হাজার টাকা, তারপর ৩৫হাজার টাকা-এভাবে কয়েক দফায় ১লাখ ৭০হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়।

গত ২৭আগষ্ট শাবলি বেগম আবারও রঞ্জনার বাড়ীতে এসে কাপড়ে মোড়ানো টাকা, কাপড়ের থলেই স্বর্ণের গহনা আছে বলে রঞ্জনা বেগমের ঘরে রক্ষিত বাক্সে রেখে দিয়ে বলে ১৫দিনের আগে এই বাক্স খুলবি না। এই ১৫দিনের মধ্যে তোর বাক্স টাকা আর সোনা দিয়ে ভরে উঠবে।

পরবর্তীতে ১৫দিন পেরিয়ে গেলে রঞ্জনা বেগম বাক্স খুলে থলে বের করে দেখে যে, কাগজ কেটে টাকার বান্ডিল তৈরী এবং পাথরের ছোট ছোট টুকরা রাখা হয়েছে থলের মধ্যে। প্রতারনার শিকার হওয়া রঞ্জনা বেগম বিষয়টি গ্রামবাসীকে জানালে তারা সুকৌশলে প্রতারক মহিলা শাবলি বেগমকে তেজঁপাড়া গ্রামে ডেকে নিয়ে আসা হয়। শাবলি বেগম গত সোমবার রঞ্জনার বাড়ীতে আসলে গ্রামবাসী তাকে আটক করে ৯৯৯ নম্বরে জানায়।

পরে সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশ প্রতারক শাবলি বেগমকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী রঞ্জনা বেগম বাদী হয়ে গতকাল মঙ্গলবার শাবলি বেগমের বিরুদ্ধে থানায় ৪২০ ও ৪০৬ (প্রতারনা ও বিশ্বাস ভঙ্গ অপরাধ) ধারায় মামলা দায়ের করেছে। গ্রেফতাকৃত শাবলি বেগমকে  জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

No comments

Leave a Reply

seven − one =

সর্বশেষ সংবাদ