Menu

গাবতলীতে পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের হামলাঃ ১০ বসতবাড়ি ও দােকান ভাংচুর, আহত- ২

আমিনুর ইসলামঃ বগুড়ার গাবতলীতে পৌরসভা নির্বাচনে পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় ২ ব্যাক্তি গুরুতর আহত ও ১০ বসতবাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করায় সেখানে পুলিশ টহল বাড়ানাে হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ৩১ জানুয়ারী দুপুর দেড়টায় গাবতলী পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের তরফমরু এলাকায়। এলাবাসী সুত্রে জানাগেছে, ৩০ জানুয়ারী গাবতলী পৌরসভার সাধারন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৭ নং ওয়ার্ড থেকে গােলাম রব্ববানী রতন (উটপাখি) প্রতিক ও সােহেল রানা (বøাকবার্ড) প্রতিক নিয়ে ২ জন প্রার্থী কাউন্সিলর নির্বাচন করেন। নির্বাচনে সােহেল রানা পরাজিত হয়। ভােটের পরদিন ৩১ জানুয়ারী রাববার বিজয়ী প্রার্থী গােলাম রব্বানীর কর্মী রাসেল ¯ানীয় একটি এলাকায় নারকেলের সােফা কিনতে গেলে পরাজিত প্রার্থী সােহেল রানার কর্মীরা সমর্থকরা তাকে মারপিট করে। এ সংবাদ গােলাম রবানীর কর্মী সমর্থকরা জানতে পেরে সবুজ ও রানা ঘটনার ¯ল ছুটে যায়। সেখানে পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থী সােহেল রানার কর্মী সমর্থকরা তাদেরকে লাঠিসােটাসহ রামদা দিয়ে এলােপাথারী মারপিট করে। এসময় রামদার আঘাতে পিঠে আঘাত প্রাপ্ত হয় বিশার ছেলেে সবুজ মিয়া ও হাটু ও অন্ডকােষে আঘাত প্রাপ্ত হয় তােতা মিয়ার ছেলে রানা গুরুতর আহত হয়। তাদেরকে প্রথম গাবতলী উপজেলা সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তাদের শারিরিক অব¯ার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহিদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানাে হয়। উক্ত ঘটনায় এলাকায় উভয় পক্ষের কাউন্সিলর কর্মী সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। এসময় আব্দুর রাজ্জাক, শাহ আলম, রেজাউল করিম, আঃ রহিম, জিলহক, আবু তাহের, নজরুল ইসলাম, ইব্রাহিম আলীসহ ১০টি বসত বাড়িতে হামলাসহ একটি দােকান, সিএনজি ও একটি মটর সাইকেল ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে থানা থেকে পুলিশ গিয়ে ঘটনার ¯ান নিয়ন্ত্রনে আনে। পুনরায় সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় পুলিশ টহল বাড়ানাে হয়েছে বলে গাবতলী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মােঃ নুরুজ্জামান জানিয়েছেন। এঘটনায় দােষারােপ করে পাল্টাপাল্টি অভিযােগ করেছে কাউন্সিলর গােলাম রব্বানী রতন ও সােহেল রানা।

No comments

Leave a Reply

thirteen + 16 =

সর্বশেষ সংবাদ