Menu

গাবতলীতে বসতবাড়িতে হামলা চালিয়ে এক অসহায় পরিবারকে উচ্ছেদঃ ২জন গ্রেফতার

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (মুহাম্মাদ আবু মুসা): বগুড়ার গাবতলীতে বাড়ি-ঘরে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে অসহায় আব্দুল খালেক খাজা’র পরিবারকে উচ্ছেদ করেছে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ২ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসেন। গত রোববার উপজেলার রামেশ^রপুর উত্তরপাড়া গ্রামে এই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অসহায় আব্দুল খালেক খাজা বাদী হয়ে রোববার রাতেই শফিকুল ইসলামকে প্রধান অভিযুক্ত করে ১৪জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ২৫/৩০জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

জানা গেছে, ওই গ্রামের মৃত চান্দু প্রামানিকের ছেলে প্রভাবশালী আঃ সামাদ ও মৃত রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে প্রভাবশালী শফিকুল ও খলিল অসহায় আব্দুল খালেকের বাড়ির জায়গা পাবে বলে দাবী করে আসছিল। এর জের ধরে ঘটনার দিন প্রভাবশালী আঃ সামাদ, শফিকুল ও খলিলের নেতৃত্বে ৫০/৬০জন সন্ত্রাসী লাঠি-সোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে অসহায় আব্দুল খালেকের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও মারপিট করে তাদের বাড়ি-ঘর উচ্ছেদ করে দেয়। সন্ত্রাসীদের মারপিটে কমপক্ষে ৩জন আহত হয়ে গাবতলী হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

আহতরা হলো অসহায় আঃ খালেক (৫০), তার স্ত্রী সালেহা বেগম (৪৩) ও ছেলের অন্তঃসত্ত¡া বউ রিনা খাতুন (২২)। অপর দিকে সন্ত্রাসী হামলার খবর পেয়ে থানার এসআই কান্তি কুমার মোদক এবং এএসআই নয়ন কুমার হোড় সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ২জনকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসেন। গ্রেফতারকৃতরা হলো রামেশ^রপুর উত্তরপাড়া গ্রামের আঃ জলিলের ছেলে শাহাদৎ হোসেন (১৮) ও আবু তাহের (৩২)।

গতকাল সোমবার তাদেকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে ওই অসহায় পরিবার কনকনে শীতের মধ্যে খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে।

এ ব্যাপারে থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত ওসি আব্দুল গণি’র সাথে কথা বললে তিনি জানান, ঘটনাটি বেদনা দায়ক, ঘটনার প্রেক্ষিতে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে এবং ২জন আসামীকে গ্রেফতার করা হলেও অন্যান্যদের গ্রেফতার করতে আমাদের অভিযান অব্যহত রয়েছে।

স্থানীয় রামেশ^রপুর ইউপি চেয়ারম্যান সেকেন্দার আলীর সাথে কথা বললে তিনি জানান, ওই জায়গার প্রকৃত মালিক আঃ সামাদ, তবে আঃ খালেক খাজা’র জমিজমা না থাকায় তাকে কিছু দিনের জন্য বসবাস করার সুযোগ দিয়েছিল।

পরবর্তীতে এ বিষয় নিয়ে কয়েক দফা শালিস-বৈঠক হয়েছে। দাগ নাম্বার ভুল হওয়ায় তা আদালত থেকে ঠিক করে আনার পর জায়গাটি ছেড়ে দিতে বললে আঃ খালেক খাজা না ছাড়াই অনাকাঙ্খিত ঘটনাটি ঘটছে।

No comments

Leave a Reply

five − one =

সর্বশেষ সংবাদ