Menu

গাবতলীতে বসতবাড়ী হামলা ভাংচুর ও লুটপাটঃ ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (বগুড়া প্রতিনিধি): বগুড়ার গাবতলীতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বসতবাড়ীতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করেছে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। ঘটনাটি ঘটেছে গত রবিবার সন্ধ্যায় উপজেলার নাড়–য়ামালা ইউনিয়নের চককাতুলী গ্রামে। সংঘর্ষ এড়াতে ওই গ্রামে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
একাধিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার নাড়–য়ামালা ইউনিয়নের চককাতুলী গ্রামের মৃত আবু তালেব ফকিরের ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিকের সঙ্গে একই গ্রামের আফজাল হোসেন প্রাং এর ছেলে আশরাফ হোসেন বাবুর বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে গত রবিবার বিকেলে বক্কর এবং বাবুর মধ্যে তর্কবির্তক হয়। একপর্যায়ে সন্ধ্যায় গ্রামে বহিরাগত সন্ত্রাসী এসেছে এমন গুজব ছড়িয়ে বাবু মসজিদের মাইক দিয়ে তাদের লোকজনকে ডেকে একত্রিত করে। এরপর দেশীয় অস্ত্রে-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বক্করের বসতবাড়ীসহ প্রায় ২০/২৫টি বাড়ীঘর ভাংচুর ও লুটপাট করেছে বলে অভিযোগ করেছেন ক্ষতিগ্রস্থরা। অন্যান্য ক্ষতিগ্রস্থরা হলো একই গ্রামের বকুল, খাজা, মোকছেদ, আনোয়ার, বেলাল, মিরাজ, তারাজুল, আব্দুর রহিম, মজিবর, মিলন, সোহাগ ও হবিবর। হামলাকারীরা স্থানীয় এক নেতার অনুসারী বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্থরা। তবে বাবুরা দাবী করেন বহিরাগত কিছু সন্ত্রাসী আগে তাদের বেশ কয়েকটি বাড়ীঘর ভাংচুর করেছে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ সংঘর্ষ এড়াতে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এ ঘটনায় পুলিশ তৎক্ষনাত ঘটনাস্থল থেকে আব্দুস সামাদ (৫০) নামের একজনকে গ্রেফতার করে গতকাল জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। এ ঘটনার পর থেকে ওই গ্রামে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এলাকায় উভয়পক্ষের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে। গতকাল সোমবার থানার ওসি (তদন্ত) জাকির হোসেনসহ সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ব্যাপারে থানার ওসি (তদন্ত) জাকির হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ দাখিল করা হয়নি।

No comments

Leave a Reply

15 − four =

সর্বশেষ সংবাদ