Menu

গাবতলীতে বাড়ীঘর ভাংচুর করছিলো বখাটের দলঃ দেখে বৃদ্ধের মৃত্যু

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (বগুড়া প্রতিনিধি): বগুড়ার গাবতলীতে বখাটে কর্তৃক বাড়ীঘর ভাংচুরের দৃশ্য দেখে শত বছর বয়সী জামাতউল্লাহ প্রাং নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যৃ হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত মঙ্গলবার রাতে উপজেলার দূর্গাহাটা ইউনিয়নের হাতিবান্ধা দক্ষিণপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গতকাল থানা পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় এনেছে। নিহত জামাতউল্লাহ প্রাং হাতিবান্ধা দক্ষিণপাড়া গ্রামের মৃত তমির উদ্দিন প্রাং এর ছেলে।

এলাকাসূত্রে জানা গেছে, গাবতলীর দূর্গাহাটা ইউনিয়নের হাতিবান্ধা দক্ষিণপাড়া গ্রামের জামাতউল্লাহ প্রাং ছেলে রেজাউল করিম এর মেয়ে হাতিবান্ধা উচ্চ বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণীতে লেখাপড়া করে। ওই স্কুল ছাত্রীর সাথে প্রেম করতে একই শ্রেণীর ছাত্র ও হাতিবান্ধা উত্তরপাড়া গ্রামের মোস্তার ছেলে রোমান দীর্ঘদিন থেকে তাকে উত্যক্ত করে আসছিল। এরই একপর্যায়ে গত মঙ্গলবার বিকেলে রোমান হাতিবান্ধা দক্ষিণপাড়া গ্রামে হাডুডু খেলা দেখার ছলে সোহাগীকে দেখার জন্য ৮/১০সঙ্গী নিয়ে রেজাউলের বাড়ীর সামনে ঘোড়াঘুরি করছিল। রোমানের ঘোড়াঘুরি দেখে সোহাগীর বড়ভাই মিজানুর তাদের চলে যেতে বলে। এ সময় রোমান উত্তেজিত হয়ে মিজানুরকে হুমকি ধামকি দিয়ে হাডুডু খেলার স্থানে চলে যায়। এরপর সোহাগীর বাবা রেজাউল ও ভাই মিজানুর হাডুডু খেলা শেষে রোমানকে ধরে মারপিট করে। তারপর রোমান তার দলবল নিয়ে রেজাউল করিমের বাড়ীঘর ভাংচুর করে। ভাংচুরের এই দৃশ্য দেখে সোহাগীর দাদা জামাতউল্লাহ প্রাং অসুস্থ্য হয়ে পড়লে রাত অনুমান ২টায় তিনি মারা যান।

খবর পেয়ে থানার ওসি সেলিম হোসেনসহ সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এবং লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য থানায় এনেছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। এ ব্যাপারে থানার ওসি সেলিম হোসেন বলেন, মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

No comments

Leave a Reply

eight − 5 =

সর্বশেষ সংবাদ