Menu

গাবতলীতে মোবাইলে কার্টুন দেখানোর কথা বলে ডেকে নিয়ে ৩য় শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষনঃ ধর্ষক গ্রেফতার

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (গাবতলী প্রতিনিধি): বগুড়ার গাবতলীতে মোবাইলফোনে কার্টুন দেখানোর প্রলোভন দেখিয়ে তৃতীয় শ্রেনীতে পড়–য়া ৮ বছরের এক শিশুকে ধর্ষনের মামলায় উজ্জল মিয়া (৩০) নামের এক ব্যাক্তিকে গাবতলী মডেল থানা পুলিশ গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করেছে। থানায় দায়েরকৃত মামলা সুত্রে জানাগেছে, গাবতলী উপজেলা নাড়–য়ামালা ইউনিয়নের জয়ভোগা মধ্যপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে উজ্জল মিয়া পাশ্ববর্তী বাড়ীর জনৈক ব্যাক্তির তৃতীয় শ্রেনীতে পড়–য়া (৮) বছরের শিশু কন্যাকে মোবাইল ফোনে কার্টুন ছবি দেখানোর প্রলোভন ও ভয়ভীতি দেখিয়ে ৩ মাস পুর্বে প্রথম দফা ধর্ষক উজ্জল তার বাড়ীতে নিয়ে ধর্ষন করে। এর কয়েকদিন পর ঐ শিশু বিকেলে মাঠে ছাগল চড়াইতে গেলে আসামী উজ্জল মিয়া গলায় কাচি ধরে ভয়দেখিয়ে জমির মধ্য ধর্ষনের চেষ্টা কালে লোকজন দেখে ফেলায় দৌড়ে পালিয়ে যায়। সর্বশেষ চলতি ২০১৯ সালের ১৯ মার্চ শুক্রবার সন্ধ্যে সাড়ে ৬ টায় জনৈক মহসীন আলীর নির্মানধিন বাড়ীর একটি নির্জন কক্ষে নিয়ে আবারো শিশুকে ধর্ষন করে। এসময় স্থানীয় লোকজন দেখে ফেললে উজ্জল পালিয়ে গেলেও বিবস্ত্র অবস্থায় ঐ শিশুকে উদ্ধার করে বাড়ীতে নিয়ে আসে এবং শিশুটি তার পিতামাতাকে দফায় দফায় ধর্ষনের বিষয়টি বর্ননা করে। ঐ শিশুর পিতা বাদী হয়ে থানায় দায়েরকৃত মামলায় এ সকল কথা উল্লেখ করেছেন। এরপর থেকে লম্পট উজ্জল পালিয়ে গেলেও ধর্ষনের ঘটনা ধামাচাপা দিতে স্থানীয় কিছু লোকজন তৎপর হলেও সংবাদটি গাবতলী মডেল থানায় এলে পুলিশ ২২ মার্চ রাতে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে শিশু ধর্ষনকারী উজ্জল মিয়াকে গ্রেফতার করে। এব্যপারে গাবতলী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) জাকির হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ধর্ষন বিষয়টি স্থানীয়ভাবে শালিশ অযোগ্য। সে জন্য সংবাদ পাওয়া মাত্রই পুলিশ ফোর্স পাঠিয়ে আসামী উজ্জল মিয়াকে গ্রেফতার করে শিশুর পিতার দায়েরকৃতমামলায় ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপুর্বক শিশু ধর্ষনের চেষ্টাসহ ধর্ষন করার অপরাধে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন আইন ২০০৩ সালের সংশোধনী মামলায় উজ্জলকে আদালতে চালান দেয়া হয়েছে।

No comments

Leave a Reply

20 + 18 =

সর্বশেষ সংবাদ