Menu

গাবতলীতে শেষ মুহুতে জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা

VLUU L100, M100 / Samsung L100, M100

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (বগুড়া প্রতিনিধি): পবিত্র ঈদ উল ফিতর’কে সামনে রেখে বগুড়া শহর’সহ গাবতলী উপজেলায় কেনাকাটার ধুম পড়েছে। ক্রেতাদের সমাগমে জমে উঠেছে ঈদ বাজার। গ্রাম্যঞ্চলের হাট বাজারের বিপনীবিতান’সহ মার্কেটগুলোতে ঈদ কেনাকাটায় ভীড় বাড়ছে। ঈদুল ফিতরের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে দোকানপাট গুলোতে বিক্রি বাড়ছে।
জানাযায়, বগুড়া জেলার সকল মার্কেট’সহ গাবতলী পৌরসভা এলাকায় ও ১১ইউনিয়নে মার্কেটগুলোতে হাজারো তরুন-তরুনী প্রতিদিন কেনাকাটা করছে। অনেকেই পরিবার পরিজনদের জন্য নতুন কাপড়, জুতা, গহনা, শিশু’দের পোষাক কিনছে। আবার কেউ কেউ ছুটছে শহরের বড় বড় মার্কেটগুলোতে। নি¤œবৃত্ত মানুষ ছুটছে ফুটপাতের দোকানগুলোতে। এই ঈদে পুরুষদের চেয়ে নারীদের ভীড় চোখে পড়ার মত। গতবছরের চেয়ে এবছরে পোষাক ও ঈদসামগ্রীর দাম বেড়েছে। টেইলার্স গুলোতে অর্ডার নেওয়া ইতিমধ্যে বন্ধ হয়েছে। দর্জিপাড়ায় বাড়ছে কারিগরদের ব্যস্ততা। ফলে নতুন জামাকাপড় তৈরীতে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন দর্জিরা। দিনরাঁত কাপড় সেলাই মেশিনে বসে কাজ করছেন তারা। তবে রেডিমেইট পোষাকের চাইতে অনেকের পছন্দ হাতে বানোনো কাজ বরা পোষাকের। এবছরে দর্জিদের কদর বেড়েছে। রংধনু কালেকশন ও ইউনিক টেইলার্স এন্ড ফেব্রিক্স প্রোপাইটার মোঃ আব্দুল মালেক মালু জানান, এবারে ঈদে বেশ অর্ডার পেয়েছি। দম ফেলানোর সময় নাই। সবচেয়ে বেশী কাজ করতে হচ্ছে কারিগরদের। দিনরাঁত সমানতালে কাজ করছেন তারা। দোকানে নারী-পুরুষদের পাশাপাশি হুজুররা অর্ডার দিয়েছে। শিশু ক্রেতা সাবিদ বিন আব্দুল মালেক জানান, এ ঈদের নতুন কাপড় ও মেহেদী রং-বেলুন কিনেছি। ঈদপর একটি বাই সাইকেল কিনতে হবে। তরুন ক্রেতা অহেদুল ইসলাম খোকন জানান, নতুন রেডিমেইট পোষাক কিনেছি। দামটা একটু বেশী। তবুও এ ঈদে নতুন পোষাক চায়। কলেজ পড়–য়া শিক্ষার্থী মৌমিতা ও রক্সী জানান, এবার ঈদে লং ড্রেস কিনেছি। তবে কসমেটিক্সের পাশাপাশি মেহেদী রং কিনতে হবে। ক্রেতা অপু, অনিম, জাহিদ, জাহাঙ্গীর ও রেজা জানান, দ্রব্যসামগ্রীর দাম বৃদ্ধি হওয়ায় কেনাকাটা করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। তবুও হতদরিদ্র মানুষের পাশে থেকে সহযোগিতা করছি। ইউনিক টেইলার্স এন্ড ফেব্রিক্স কাপড় কাটার মাষ্টার উজ্জল, সুমন, মাহফুজার জানান, এ ঈদে কাপড়ের অর্ডার সবচেয়ে বেশী পেয়েছি। কাপড় বিক্রি ভাল হচ্ছে। ঈদের সময় যতই এগিয়ে আসছে বিক্রি ততই বাড়ছে। ঈদে কিশোর কিশোরী’রা নতুন পোষাক বেশী কিনছে। তবে তরুন’দের পাঞ্জাবী, পায়জামা, র্শাট, টির্শাট, জিন্স প্যান্ট, ফতুয়া। আর তরুনীরা কিনছে থ্রি-পিছ, সালোয়ার কার্মিজ, ওড়না, শাড়ি, কসমেটিক্স, জুতা সেন্ডেল’সহ সকল প্রয়োজনীয় ঈদসামগ্রী। এছাড়াও পরিবারের প্রধান কর্তাগণ কিনছেন লাচ্ছা সেমাই, চিনি, কিসমিস, বাদাম, দুধ, পাউডার, লুডুলস, আতপ চাল ও মসলা সামগ্রী।

No comments

Leave a Reply

four × 3 =

সর্বশেষ সংবাদ