Menu

গাবতলী-চকিরঘাট সড়কের প্রায় ২৫ কিলােমিটার বেহাল অবস্থাঃ জনগনের দূর্ভোগ

মুহাম্মাদ আবু মুসাঃ বগুড়ার গাবতলী-কাগইল চকিরঘাট সড়ক পাকা কার্পেটিং উঠে গিয়ে অসংখ্য স্থানে ছােট বড় গর্তের সৃৃষ্টি হয়েছে। ফলে সড়কটির উপর দিয়ে সব ধরনের যানবাহন চলাচলে প্রায় অযােগ্য হয়ে পড়েছে। যে কারনে জনসাধারণের পােয়াতে হচ্ছে চরম দুর্ভােগ। এই সড়কটি দ্রæত পুনঃ নির্মাণ বা মেরামত করা না হলে উত্তর গাবতলীর মানুষ অনেকটা যােগাযােগ বিছিন্ন হয়ে পড়বে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছেন এলাকাবাসি। জানা গেছে, গাবতলী-চকিরঘাট সড়কটির সাথে বগুড়া জেলা শহর ছাড়া মহাসড়কের অত্যান্ত সর্ম্পক রয়েছে। গাবতলী উপজেলার মধ্য এই সড়কের পীরগাছা বন্দর ব্যবসায়ী বন্দর হিসেবে গড়ে উঠেছে। তাছাড়া এই সড়কের সাথে আরাে বেশ কয়েকটি বদর ও হাট বাজারের সর্ম্পক রয়েছে। এ গুলাে থেকে প্রতি বছর সরকার কােটি কােটি টাকা রাজস্ব আয় করে থাকে। গাবতলী-চকিরঘাট সড়ক রয়েছে হাট-বাজার, বন্দর মাছের আড়ৎ থেকে শুরু করে বহু চাতালসহ সব ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কয়েকটি ব্যাংক, বীমা, এনজিওসহ সরকারী বেসরকারী অনেক অফিসও রয়েছে। এই সড়কটির উপর দিয়ে প্রতিদিনই লাখাে মানুষ শতশত যানবাহন নিয়ে চলাচল করে। নানা ধরনের যানবাহন ও পায়ে হেটে যাতায়াত করে থাকে স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রী, অফিসগামীসহ লাখাে মানুষ। প্রায় ২৫কিলাে মিটার গাবতলী-চকিরঘাট সড়ক রয়েছে সড়ক ও জনপথ (সওজ) এর আওতায়। এই সড়ক তেমন কােনও কাজ না হওয়ায় ২/৩ কিলােমিটার ছাড়া সম্পূর্ণ সড়কটির বেহাল অবস্থা রয়েছে। সড়কটির পাকা কার্পেটিং উঠে গিয়ে অসংখ্য স্থানে ছােট বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় দেখে মনে হবে এটি কােনও সড়ক নয়। এ কারনে প্রতিদিন ছােট বড় দুর্ঘটনা লেগেই আছে। কিছু দিন আগে ওই সড়কের ছেও এলাকায় রাহুল নামের এক স্কুল শিক্ষকের প্রাণ দিতে হয়েছে। আবার সড়কে সৃষ্টি হওয়া গর্ত ময়লা পানি জমে থাকায় যানবাহনের চাকায় পানি ছিটকে মানুষের শরীরে লেগে কাপড় চােপড় নষ্ট হওয়ায় ঝগড়া বিবাদও সৃষ্টি হচ্ছে। এ ছাড়া আরাে নানা সমস্যা হওয়ার কারনে জনসাধারণের পােয়াতে হচ্ছে চরম দুর্ভাগ। কাগইল ইউপি চেয়ারম্যান আগা নিহাল বিন জলিল তপন জানান, এই সড়কটি দ্রুত পুনঃ নির্মাণ বা মেরামত করা না হলে উত্তর গাবতলীর লাখাে মানুষ অনেকটা যােগাযােগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি (তপন)।
এ ব্যাপার বগুড়া সড়ক ও জনপথ (সওজ) এর নির্বাহী প্রকৌশলী মােঃ আসাদুজ্জামান এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, সড়কটির অবস্থা খারাপ হওয়ার বিষয়ে আমাদের জানা থাকায় জেলা সড়ক উনয়ন প্রকল্পের আওতায় অর্Íভূক্ত করা হয়েছে। তিনি (আসাদুজ্জামান) আরাে বলেন, দক্ষিন গাবতলীর ধুনট এর সিমানা থেকে উত্তর গাবতলীর শেষ সিমানা চকিরঘাট পর্যন্ত ৫২কিলােমিটার পাকা সড়ক পুনঃনির্মাণের জন্য বরাদ্দ চেয়ে সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করা হয়েছে। আশা করছি অচিরেই এই সড়ক পুনঃনির্মাণের জন্য বরাদ্দ পাওয়া যাবে। এ ছাড়া এই পুনঃনিমার্ণ কাজ গুলাে চলমান রয়েছে। বগুড়া সড়ক ও জনপথ (সওজ) এর নির্বাহী প্রকৌশলী মােঃ আসাদুজ্জামান আরাে বলেন, আপাতত ওই সড়ক যে গুলাে স্থানে ছােট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে সেই স্থান মেরামত করা হচ্ছে।

No comments

Leave a Reply

18 − eleven =

সর্বশেষ সংবাদ