Menu

বাংলাদেশের রবিদাস জনগোষ্ঠীর আর্থ-সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও জীবনমান উন্নয়ন এবং মানবাধিকার সুরক্ষায় প্রাণের ১১দফা দাবি মানতে হবে

বাংলাদেশ রবিদাস ফোরাম (বিআরএফ)
ইধহমষধফবংয জধনরফধং ঋড়ৎঁস (ইজঋ)
কেন্দ্রীয় কমিটি, ঢাকা, বাংলাদেশ
কেন্দ্রীয় কার্যালয় : ওয়ারী রবিদাসপাড়া, নবাব স্ট্রীট, ওয়ারী, ঢাকা-১২০৩।
যোগাযোগ : ০১৭৩৭২৫৬৯১৯, ০১৯২০৯৩৭৯৬০, ০১৭২৪৪০১৪৫৫, ০১৭৩৭৪২৫৩০৬, ০১৭১৯৫১৩৫৭৮, ঊ-সধরষ : নৎভ.ড়ৎম.নফ@মসধরষ.পড়স

স্মারক নং ঃ বিআরএফ/কেক/২০১৯(৪৪) তারিখ : ২৭ আগষ্ট, ২০১৯

বরাবর,
বার্তা সম্পাদক

দৃষ্টি আকর্ষণ: চীফ রিপোর্টার

বিষয়:‘দিল্লিতে রবিদাসজীর মন্দির ভাঙ্গার ঘটনায় প্রতিবাদ ও পুনর্নির্মাণের দাবীতে বাংলাদেশ রবিদাস ফোরাম (বিআরএফ) এর মানববন্ধন ও সমাবেশ এ রিপোর্টার ও আলোকচিত্রী/ক্যামেরাম্যান প্রেরণ প্রসঙ্গে।

প্রিয় মহোদয়,

বাংলাদেশের মূলস্রাত থেকে পিছিয়েপড়া, অবহেলিত ও অনুন্নত প্রায় ৮ লক্ষ্যাধিক রবিদাস জনগোষ্ঠীর জীবন-মান উন্নয়ন, মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা, সমাজ সংস্কার, ক্ষমতায়ণ এবং আর্থ-সামাজিক-সাংস্কৃতিক উন্নয়নকল্পে গড়ে ওঠা সংগঠন “বাংলাদেশ রবিদাস ফোরাম (বিআরএফ)” কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে উষ্ণ শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিবাদন গ্রহন করবেন।

দিল্লির তুঘলকাবাদের ৫০০ বছরের পুরোনো রবিদাস মন্দির ভাঙ্গার ঘটনায় প্রতিবাদ ও মন্দিরটি পুনর্নির্মানের দাবীতে বাংলাদেশ রবিদাস ফোরাম (বিআরএফ)-কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে মানববন্ধন ও সমাবেশ আগামীকাল (২৮ আগষ্ট, ২০১৯) বুধবার সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত হবে। কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি চাঁনমোহন রবিদাস।

বাংলাদেশ রবিদাস ফোরাম (বিআরএফ) মহাসচিব শিপন রবিদাস প্রাণকৃষ্ণ এর সঞ্চালনায় এসময় বক্তব্য রাখবেন সারাদেশের বিভিন্ন জেলার রবিদাস জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধির পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও মানবাধিকার সংগঠক সহ বিভিন্ন সমমণা সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, গত ১০ আগস্ট সুপ্রিম কোটের নির্দেশেই দিল্লির তুঘলকবাদের রবিদাস মন্দির ভাঙে দিল্লি ডেভেলপমেন্ট অথরিটি (ডিডিএ)। ষোড়শ শতকের এই কবি-সাধু-ধর্মগুরুর মন্দিরটি দলিত তথা তফসিলি জনগোষ্ঠীর অধিকার রক্ষার জন্য সংগ্রামের প্রতীক এবং ধর্মীয় স্থান হিসাবেই পরিচিত। কিন্তু রবিদাস স¤প্রদায়ের সঙ্গে কোনওরকম আলোচনায় না গিয়ে মন্দিরটি এভাবে ভেঙে দেওয়ার সারাবিশ্বের রবিদাস জনগোষ্ঠী চরমভাবে ব্যথিত হয়েছে।

আমরা জানি, বাংলাদেশের অনগ্রসর ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মানবাধিকার ও সংশ্লিষ্ট ব্যাপারে আপনি সবসময় সক্রিয় এবং আন্তরিক। এ কর্মসূচিতে আপনার উপস্থিতি অনগ্রসর রবিদাস জনগোষ্ঠীর অধিকার প্রতিষ্ঠা এবং তাদের সামনে এগিয়ে আনার ক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা রাখবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।

No comments

Leave a Reply

16 + three =

সর্বশেষ সংবাদ