Menu

মহাস্থানে বিধবা ও এতিমের জমি দখলেরচেষ্টায় বসতবাড়ী ভাংচুর ও মারপিট

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (শিবগঞ্জ প্রতিনিধি): বগুড়ার শিবগঞ্জের মহাস্থানে এক বিধবার বসতবাড়ির জমি জবর দখল চেষ্টা ভাংচুর ও মারপিটের অভিযোগ ঘটেছে। এঘটনায় গত বুধবার শিবগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ভূক্তভুগী ঐ বিধবা নারী। গত রবিবার বিকাল ৪টার দিকে শিবগঞ্জ উপজেলার রায়নগর ইউনিয়নের মহাস্থান দক্ষিণপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মহাস্থান দক্ষিনপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল বারী বেশ কয়েক বছর পূর্বে মারা গেছেন। তার সংসারে ১ছেলে ও ২মেয়ে ছিল। প্রকৃতির নিয়মে ১ছেলে ও ১মেয়েও অকালে মারা যান। বর্তমান তাদের সংসারে উপার্জনক্ষম কোন ব্যক্তি নেই। এতিম ১মেয়েকে নিয়ে বিধবা মিনা বেওয়া তার বসতভীটার সামান্য জমিতে কোন রকম সংসার চালিয়ে জীবনযাপন করে যাচ্ছেন। হঠাৎ গত রবিবার একই গ্রামের মৃত ইসমাইলের পুত্র এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তি ফুলমিয়ার নেতৃত্বে তার ভাই টুলু মিয়াসহ বেশ কয়েকজন দেশীয় অস্ত্রে-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ঐ জমির মালিকানা দাবি করে বিধবার বসতভীটায় ঢুকে ইটের প্রাচীর ও বাড়ীর বারান্দা সহ বেশকিছু জিনিসপত্র ভাংচুর চালায়। এসময় অসহায় বিধবা মিনা বেওয়া বাধাঁ দিলে প্রতিপক্ষরা তাকে মারপিট করে। এসময় মাকে বাচাঁতে এতিম মেয়ে লাকমী এগিয়ে এলে তাকেও বেধর মারপিক করে। শুধু মারপিট করেই শান্ত হয়নি সন্ত্রাসীরা মা ও মেয়েকে মরিচের গুড়া পানির সাথে মিশিয়ে শরীরে নিক্ষেপ করেছে। ঐ এলাকার বাসিন্দা মর্জিনাসহ অনেকেই বিষয়ির সত্যতার নিশ্চিত করেছে। এবিষয়ে ঐ এলাকার ইউপি মেম্বার তোফা বলেন, বিধবাকে মারপিট ও বাড়িঘরে ভাংচুরের কথা শুনেছি। তবে এব্যাপারে এর আগেও গ্রাম্য শালিশ হয়েছিলো। এবিষয়ে শিবগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান,এ ব্যাপারে বিধবা মিনা বেগম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

No comments

Leave a Reply

18 − thirteen =

সর্বশেষ সংবাদ