Menu

শিবগঞ্জের খামটা সরকারি হাটের জায়গা দখল করে দোকান নির্মাণের অভিযোগঃ ১০ বছর যাবৎ বিনা টেন্ডারে চলছে হাট

সাজু মিয়া (শিবগঞ্জ) বগুড়াঃ বগুড়ার শিবগঞ্জে উপজেলার কিচক ইউনিয়নের খামটা সরকারি হাটের জায়গা দখল করে অবৈধভাবে দোকান ঘর নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগ পেয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মৌলি মন্ডলের নির্দেশে ভূমি কর্মকর্তারা গিয়ে দোকান ঘর নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন। অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার কিচক ইউনিয়নের খামটা বাজারে বিষ্ণপুর, খামটা, মাদারগাছী, সিংগের পাড়া গ্রামের বাসিন্দারা সপ্তাহে প্রতি শনিবার ও মঙ্গলবার খামটা মৌজার ১নং খতিয়ানের ৬৪, ৬০, ৬৩ এবং ১১৬২ দাগের উপর হাট বসিয়ে তাদের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ক্রয় বিক্রয় করতেন।

ওই হাটে প্রায় ৪২টি দোকান রয়েছে। হাটে ক্রেতা বিক্রতাদের উপস্থিতি ভাল হওয়ায় হাটটি কয়েক বছর সরকারিভাবে ডাক হয়। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে গত প্রায় ১০ বছর ধরে হাটটি সরকারিভাবে আর ডাক হয় না বলে এলাবাসী জানায়।

প্রশাসনিক ভাবে ওই হাটের কোন খোঁজখবর না নেয়ায় হাটের ফাঁকা জায়গাগুলো স্থানীয় অসাধু ব্যক্তিদের নজরে পড়ে। তারা উদ্যোগ নেয় ফাঁকা জায়গায় দোকান ঘর নির্মাণের।

এ নির্মাণ কাজ করার অভিযোগ ওঠে ফিরোজ ওরফে তরুণ নামে স্থানীয় প্রভাবশালী এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। অবৈধ নির্মাণ কাজে স্থানীয়রা বাঁধা দিলে তরুণ ও তার পালিত সন্ত্রাসীরা প্রতিবাদকারীদের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয় এবং তাদের নানাভাবে হুমকি-ধামকি প্রদান করে।

বিষয় স্থানীয় লোকজন শিবগঞ্জ উপজেলা কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ দায়ের করলে অবৈধভাবে চলমান দোকাঘর নির্মাণকাজ বন্ধ করে দেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মৌলী মন্ডল। তিনি বলেন, সরকারি হাটে অবৈধভাবে দোকান ঘর নির্মাণ করে হাটের সৌন্দর্য নষ্ট করার অধিকার কারও নেই। যদি পুনরায় কেউ নির্মাণ কাজ শুরু করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

একটি সরকারি হাট কি কারণে প্রায় ১০ বছর যাবৎ টেন্ডারবিহিন অবস্থায় চলছে এর কারণ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মে কুলসুম সম্পার নিকট জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, বিষয়টি তাঁর জানা নেই, তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আগামী বছর থেকে টেন্ডারের মাধ্যমে খামটা হাটটি ইজারা দেয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

No comments

Leave a Reply

11 − 3 =

সর্বশেষ সংবাদ