Menu

শিবগঞ্জে এমপি জিন্নাহ্ দুলাভাই, শ্যালক রিজু হলেনউপজেলা চেয়ারম্যান!

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (গোলাম রব্বানী শিপন, মহাস্থান বগুড়া): বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনারের বেঁধে দেয়া তারিখ ১৮মার্চ সোমবার বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদে দ্বিতীয় ধাপে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা এই নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে ছিলেন, ক্ষমতাশীল দল আওয়ামীলীগের মনোনীত নৌকা মার্কা প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আজিজুল হক। এছাড়া বিএনপি থেকে সদ্য বহিষ্কৃত মহিলা আনারস মার্কা প্রতীকে জনাবা বউটি বেগমও চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছিলেন। তিনি ভোটে ৩য় হয়েছেন। জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও প্রথম ধাপের উপজেলা নির্বাচনের দিকে তাকালে দেখা যায়, সারাদেশে নির্বাচনে আওয়ামীগ প্রার্থীদের বেশিরভাগ জয় নিশ্চিত থাকলেও শিবগঞ্জের চিত্রটি পাল্টে দিয়েছে মোটরসাইকেল প্রতীকে হেবিওয়েট লড়াকু স্বতন্ত্র প্রার্থী ফিরোজ আহম্মেদ রিজু। বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে বিপুল ভোটে জয়যুক্তহন উপজেলা ১২নং রায়নগর ইউনিয়ন পরিষদে পরপর দু’বার নির্বাচিত হওয়া সফল চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ রিজু।
সোমবার সকাল ৮টা থেকে ৪টা পর্যন্তু ভোট গ্রহণ চলে। রাতে নির্বাচন ফলাফলে জানা যায়, আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী জনাব, আজিজুল হককে পরাজিত করে (মোটরসাইকেল প্রতীক) নিয়ে তিনি ৬২ হাজার ৫৯০ ভোট পেয়ে বিজয় লাভ করেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন (নৌকার প্রার্থী) আজিজুল হক। তিনি মোট পেয়েছেন ২৬ হাজার ৮০০।
৩৫হাজার ৭৯০ ভোট পেয়ে বেসরকারী ভাবে নির্বাচিত হন রিজু। ক্ষমতাশীল দল নৌকার এমন ফলাফলে এলাকা জুড়ে আলোরণ সৃষ্টি হয়েছে। এর আগে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-২ শিবগঞ্জ আসন থেকে জাতীয় পার্টির মোননীত প্রার্থী হয়ে নির্বাচিত হন বীরমুক্তি যোদ্ধা আলহাজ্ব শরিফুল ইসলাম জিন্নাহ্ এমপি। উপজেলার হাট-বাজার ও পাড়া-মহল্লায় সাধারণ মানুষ তাদের পছন্দের প্রার্থী রিজুকে নিয়ে উল্লাসিত হৈ-চৈ করে বলছেন দুলাভাই এমপি শ্যালক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। দুলাভাই ও শ্যালকই এখন শিবগঞ্জ নগর পিতা। তাদের হাতেই উপজেলা পরিচালিত হবে।
তরুন জননেতা ফিরোজ আহম্মেদ রিজু,
তিনি শিবগঞ্জ উপজেলার রায়নগর ১২নং ইউনিয়ন পরিষদের পরপর ২বার বিপুল ভোটে জয়লাভ করে ছিলেন। ফিরোজ আহম্মেদ রিজু রায়নগর ইউনিয়নের প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ প্রাক্তন শিক্ষক ও রায়নগর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম মুজিবুর রহমনের পুত্র। সদ্য উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ রিজু ছোটবেলা থেকেই বাবার মত মেধাবী, সৎ, পরপোকারী, পরিচ্ছন্ন আর স্বচ্ছ ইমেজের মানুষ। ছাত্রজীবন নিয়েও তিনি প্রশংসার দাবিদার। প্রতিযোগিতামূলক রাজনৈতিক জগতে নিজের স্বচ্ছতার ইমেজ ধরে রাখার পাশাপাশি সমাজ সেবা, গরীব-অসহায়দের পাশে দাঁড়ানো আর সংগঠনে মেধা সম্পুন্ন নেতৃত্ব তথা কর্মী সৃষ্টিতে তিনি অপ্রতিরোধ্য ভূমিকা রেখেছেন।
একজন ভাল নেতা হিসেবে যতো গুলো গুনাবলি থাকা দরকার সব কিছুই রিজুর আছে।
তাই স্বচ্ছ রাজনৈতক ব্যক্তি হিসেবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন করে অনেক আগে চেয়ারম্যান হওয়া তার দরকার ছিল। এদিকে ফিরোজ আহম্মেদ রিজু কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে জানান। উপজেলাবাসী আমাকে ভোটে নির্বাচিত করে গর্বিত করেছেন। আমি আমার দুলাভাই এর আদর্শ অনুকরণ করে যতদিন চেয়ারম্যান থাকবো উপজেলার সকলস্তরের মানুষের মাঝে আমার শতভাগ সেবা নিশ্চিত থাকবে। কোন দল ভোট দিল আর কে দিল না, এসব নিয়ে আমার কোন ভাবনা নেই। আমি সবাইকে নিয়ে আগামী দিনে শিবগঞ্জ উপজেলার উন্নয়ন করতে চাই।

No comments

Leave a Reply

18 − eleven =

সর্বশেষ সংবাদ