Menu

শিবগঞ্জে কৃষক জাফিরুরের গরুর দাম ৪লক্ষ টাকা!

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (রবিউল ইসলাম রবি, শিবগঞ্জ): উপজেলার কিচক ইউনিয়নের মাটিয়ান উত্তর পাড়ার কৃষক জাফিরুল ইসলাম গরু (ষাঁড়) লাল বাবুর দাম হাকছেন ৪ লক্ষ টাকা। জানা যায়, উপজেলার কিচক ইউনিয়নের মাটিয়ান উত্তর পাড়ার গ্রামের আহম্মদ আলীর প্রাং এর ছোট ছেলে জাফিরুল ইসলাম এর মনে ইচ্ছে জাগে সে মনের মত একটি গরু (ষাঁড়) লালন পালন করবেন। এমন স্বপ্ন নিয়ে কৃষক জাফিরুল শখের বসে দেশী গাভীতে শাহীওয়াল জাতের বীজ দেয় । তার পর গাভী হতে একটি শাহীওয়াল জাতের (বাছুর) জন্ম নেয় । শাহীওয়াল (বাছুর) ষাঁড়টি খুব যতœ সহকারে পালন করতে থাকেন।। মাত্র আড়াই বছর লালন পালন করার পর ষাঁড়টি অনেক বড় হয়েছে যা দেখতে হাতির মত হয়েছে।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, বড় আকারে ষাঁড়টির দৈর্ঘ্য প্রায় ৬ ফুট, প্রস্থ ৭ ফুট । স্থানীয় পশু চিকিৎসক ফারুকুল হাসান (ফারুক) মেপে ১৫/১৬ মন মাংসে হতে পারে বলে ধারনা দিয়েছেন। এ বিষয়ে গরুর মালিক জাফিরুল বলেছেন আমি খুব শখ করে গরুটি পালন পালন করেছি। অল্প সময়ে কঠোর পরিশ্রম আর নিবির পরিচর্যায় শাহীওয়াল জাতের গরুটি এখন আমার ভাগ্যের দ্বার খুলে দিয়েছে। আল্লাহ্ তায়ালাই আমার মনের আশা পুরুণ করেছেন। আমার অনেক স্বপ্ন ছিল, সত্যই স্বপ্নটি এখন বাস্তব রুপ নিয়েছে। মহা মূল্যেবান হাতির মত ষাড় পুষে আমি সফল হয়েছি। খরচ জানতে চাইলে বলেন, প্রতিদিন ৪৫০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা খাবার দিতে হয়। জাফিরুল আরো ও বলেন, গরুটি আমি সন্তনের মত করে পালন করেছি তাই ওর নাম রেখেছি “লালবাবু”। লালবাবু প্রিয় খারাব কলা। তিনি আরোও বলেন, গরুটির খেদমতে আমার স্ত্রীর ভূমিকাই যতেষ্ঠ ছিল। গরুটি আমি বিক্রি করার জন্য চেষ্টা করছি। ইতিমধ্যে অনেকে গরুটি দাম হেকেছে ৩লাখ বিশ, আমি ৪লাখ টাকা হলে বিক্রি করব। আমার চাওয়া দাম ৫লক্ষ টাকা। এই প্রচন্ড শাহীওয়াল ষাঁড়টি দেখার জন্য প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক মানুষ ভীড় জমাচ্ছে। তবে এলাকাবাসী মনে করছে, কৃষক জাফিরুল এর মত একটি গরু পালন করতে পারলেই স্বাবলম্বী হওয়া সম্ভব।

No comments

Leave a Reply

fourteen + eighteen =

সর্বশেষ সংবাদ