Menu

শিবগঞ্জে পরকীয়া ফাঁস হওয়ায় গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে চাচি-ভাতিজার আত্নহত্যা

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (শিবগঞ্জ প্রতিনিধি): বগুড়ার শিবগঞ্জে পরকীয়ার ঘটনা ফাঁস হওয়ায় গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে চাচি-ভাতিজা আত্মহত্যা করেছে। আজ সোমবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার গাংনগর মাঝপাড়া এলাকায় বাড়ির পাশের আখ খেত থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
মারা যাওয়া ব্যক্তিরা হলেন-শিবগঞ্জ উপজেলার গাংনগর মাঝপাড়ার সুবন্ধু দাসের স্ত্রী চৈতী রানী দাস (২৭) ও অমল চন্দ্র দাসের ছেলে কনক চন্দ্র দাস (২০)।
স্থানীয়রা জানান, চৈতীর স্বামী অমল চন্দ্র হতদরিদ্র কৃষক। তাদের পরিবারে দুই মেয়ে রয়েছে। অন্যদিকে অমলের আপন বড় ভাইয়ের ছেলে কনক। তারা পাশাপাশি বাড়িতে বসবাস করতো। চৈতী রানী ও কনক দাসের মধ্যে পরকীয়া সম্পর্ক চলছিল। তারা সম্পর্কে চাচি ও ভাতিজা হওয়ায় শুরুর দিকে তাদের মেলামেশা প্রতিবেশীরা কেউ সন্দেহের চোখে দেখেনি। কয়েকদিন আগে দুজনের সম্পর্কের বিষয়টি জানাজানি হয়। এটি নিয়ে উভয়ের পরিবার থেকে তাদের সাবধানও করা হয়।
রোববার রাতে চৈতী রানী ও কনক ঘর থেকে বের হয়ে যায়। এরপর সোমবার সকালে বাড়িতে তাদের দেখতে না পেয়ে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি শুরু করে। একপর্যায় বাড়ির কিছু দূরে আখ খেতে দুইজনের লাশ পাওয়া যায়।
শিবগঞ্জের মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের কর্মকর্তা পরিদর্শক সনাতন চন্দ্র সরকার জানান, গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে চাচি-ভাতিজা আত্মহত্যা করেছেন। দুজনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

No comments

Leave a Reply

four × four =

সর্বশেষ সংবাদ