Menu

শিবগঞ্জে যাত্রী ছাউনি এখন খাবারের হোটেল!

সাজু মিয়া ( শিবগঞ্জ) বগুড়া প্রতিনিধিঃ বগুড়ার শিবগঞ্জের বুড়িগঞ্জ থেকে পীরব বন্দরে যাতায়াতের পথে কামতারায় যাত্রীদের বিশ্রামের জন্য নির্মাণ করা হয় যাত্রী ছাউনি। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে যাত্রী ছাউনিটি দখলে রেখেছেন এলাকার প্রভাবশালী আব্দুল খালেক।

যাত্রীদের বিশ্রামের পরিবর্তে তিনি দখল করে বানিয়ে ফেলেছেন খাবারের হেটেল। ১৫ বছরেও উদ্ধার হয়নি ওই যাত্রী ছাউনি। যাত্রী ছাউনি দখল হয়ে যাওয়ায় যাত্রীদের রোদ-বৃষ্টিতে রাস্তার ওপর দাঁড়িয়ে থেকে যানবাহনের জন্য অপেক্ষা করতে হয়।

সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, বগুড়া থেকে পীরব বন্দরে যাত্রীরদের যাতায়াতের সুবিধার্থে শিবগঞ্জ উপজেলার কামতারা এলাকায় নির্মাণ করা হয় ওই যাত্রী ছাইনি। বর্তমানে যাত্রী ছাউনিতে দোকানপাট করার ফলে যাত্রী ছাউনির কোনো অস্তিত্ব নেই। যাত্রী ছাউনির দোকানগুলোতে এখন মাদকসেবী ও চিনতাইকারীদের আড্ডা চলে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। এতে যাত্রী ছাউনির অস্তিত্বই লোপ পেয়েছে। ভুক্তভোগী যাত্রীরা দখল হয়ে যাওয়া যাত্রী ছাউনি উদ্ধার করে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দিতে প্রশাসনের কাছে দাবি জানিয়েছেন।

বুড়িগঞ্জ হাটের ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, আমাদের এলাকার লোকজনের জন্য সড়কে যাত্রী ছাউনিটি নির্মাণ করা হয়েছিল, কিন্তু বর্তমানে সেখানে চায়ের দোকান, খাবারের হোটেল, পান-সিগারেটের দোকান বসায় কোনো যাত্রী বসতে পারেন না। দিনের বেলা ছাড়া রাতেও খোলা থাকে দোকানগুলো। রাতের বেলায় সেখানে মাদকসেবী, ছিনতাইকারী বসে চা-পানের নামে আড্ডা দেয়।

এলাকার কয়েকজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আব্দুল খালেক দীর্ঘদিন ধরে জায়গাটি দখল করে নিয়ে হোটেল ব্যবসা করে আসছেন। তাকে কিছু বললেই তিনি জানান এলাকার প্রভাবশালীদের ম্যানেজ করেই নাকি ব্যবসা করছেন। সাধারণ মানুষের কথা মূল্যহীন।

এ বিষয়ে আব্দুল খালেকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, জায়গাটি পরে থাকায় আমি দখল নিয়ে খাবারের হোটেল ব্যবসা করছি।

এবিষয়ে শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মে কুলসুম সম্পা জানান, যাত্রী ছাউনি যাত্রীদের বিশ্রামের জন্য করা হয়েছে। এখানে যাত্রীরা বিশ্রাম নেবে। বিষয়টি শুনেছি। এ ব্যাপারে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

No comments

Leave a Reply

nineteen + fifteen =

সর্বশেষ সংবাদ