Menu

সাদুল্যাপুরে পুলিশ লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় মামলা দায়ের : পুলিশ কর্মকর্তা ক্লোজ

আবু হানিফ মোঃ বায়েজিদ (গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি) : গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার ধাপেরহাটে পুলিশকে লাঞ্চিত করার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া ওই ঘটনায় এক পুলিশ কর্মকর্তাকে গাইবান্ধা পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার গভীর রাতে দায়েরকৃত ওই মামলায় আটক যুবলীগ নেতা রাব্বী শাহান পলাশকে একমাত্র নামীয় ও অজ্ঞাত ৩০/৩৫ জনকে আসামী করা হয়। অপরদিকে ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক নওয়াবুর রহমানকে মঙ্গলবার রাতেই গাইবান্ধা পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে।

সাদুল্যাপুর থানার ওসি (তদন্ত) মোস্তাফিজার রহমান জানান, সরকারী কাজে বাধাদান ও দলবদ্ধভাবে পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে মারপিট করার অভিযোগ এনে ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক নওয়াবুর রহমান বাদি হয়ে যুবলীগ নেতা পলাশসহ অন্যান্যদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।

গাইবান্ধা পুলিশ সুপার মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, নওয়াবুর রহমানকে প্রশাসনিক কারণে পুলিশ লাইনে নিয়ে আসা হয়েছে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখা হবে।

উলে­খ্য, ধাপেরহাটের পালানপাড়ার মামুনি আকতার নামে এক গৃহবধু পারিবারিক দ্ব›েদ্বর জের ধরে গত মঙ্গলবার স্থানীয় কিছু যুবকের সহায়তায় বাড়ীর আসবাবপত্র নিয়ে বাবার বাড়ী যাওয়ার উদ্যোগ নেন। ওই বিষয়ে তার স্বামী সহিদ সরকারের অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে ধাপেরহাট ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক নেতা রাব্বী শাহান পলাশ তাদের উপর চড়াও হন।

এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে বাকবিতান্ডা শুরু হয়। এ সময় পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আজিজুর রহমান ঘটনাটি মোবাইলফোনে ভিডিও করতে শুরু করলে যুবলীগ নেতা পলাশ তার মোবাইল ফোনটি কেড়ে নেন। এসময় তাদের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হয়।

পুলিশ তখন তাকে আটক করে তদন্ত কেন্দ্রে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজন ও দলীয় নেতাকর্মী ক্ষুব্ধ হয়ে ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র ঘেরাও করলে পুলিশ তিন রাউন্ড শর্টগানের গুলি ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে।

No comments

Leave a Reply

3 + 15 =

সর্বশেষ সংবাদ