Menu

সারিয়াকান্দিতে নিরাপদ খাদ্য আইন ২০১৩ বাস্তবায়নে টাস্কফোর্স অভিযান

পাভেল মিয়া, স্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ার সারিয়াকান্দি বাজারের বিভিন্ন দোকানে নিরাপদ খাদ্য আইন ২০১৩ বাস্তবায়নে টাস্কফোর্স অভিযান ও মেয়াদ উত্তীর্ণ খাবার রাখার ব্যাপারে সতর্ক করা হয়।
রবিবার (৫ জানুয়ারি) সকালে বগুড়া সিভিল সার্জন অফিসের আয়োজনে বগুড়া জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ স্যানিটারী ইন্সপেক্টর ও নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শকবৃন্দের অংশগ্রহনে নিরাপদ খাদ্য আইন, ২০১৩-এর আওতায় বিভিন্ন দোকানীদেরকে সর্তক করা হয়।
সরকার “নিরাপদ খাদ্য আইন ২০১৩” ও সংশ্লিষ্ট বিধিমালা প্রণয়ন করেছেন। উক্ত আইনের ধারা- ৪৩ পঞ্চম অংশ অনুসারে, “কোন ব্যক্তি বা তাহার পক্ষে নিয়োজিত অন্য কোন ব্যক্তি, প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে, মেয়াদোত্তীর্ণ কোন খাদ্যদ্রব্য বিক্রয় করিতে পারিবেন না।
এরই ধারাবাহিকতায় বগুড়া জেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর ও নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক রামচন্দ্র সাহা সারিয়য়াকান্দি বাজার বিভিন্ন দোকান, ঝুকিপূর্ণ খাদ্য প্রতিষ্ঠান ও মেয়াদ উত্তীর্ণ দোকানীদের সতর্ক করে দেয়। পরে মেয়াদ উত্তীর্ণ খাদ্য সামগ্রী একত্রিত করে আগুনে পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, শেরপুর উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর ও নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক তহমিনা আকতার, শাহজাহানপুর উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর ও নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক নাজিম উদ্দিন, সারিয়াকান্দি উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর ও নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক এ.কে.এম আজিজুল কবির (রিপন)।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে রামচন্দ্র সাহা বলেন, ‘আমরা নিরাপদ খাদ্য আইন, ২০১৩-এর আওতায় সর্তক ও ঝুকিপূণ খাদ্য প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করতাছি, খাদ্যদ্রব্যতা ভোক্তাদের কাছে যে বিক্রি করছে, মেয়াদ উত্তীর্ণ কোনো খাদ্য বিক্রয় করছে কি না। যা খাইলে মানুষের শরীরের স্বাস্থের জন্য ক্ষতিকর হয়। এগুলো খোঁজে বের করে মৌখিক ভাবে সর্তক করা হয়। এর পর থেকে মেয়াদ উত্তীর্ণ খাদ্য সামগ্রী যেখানে পাওয়া যাবে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা ও সাজা দেওয়া হবে।

No comments

Leave a Reply

fourteen + 19 =

সর্বশেষ সংবাদ