Menu

সারিয়াকান্দিতে বদরুল হত্যা মামলার আসামীরা জামিনে এসে মামলা তুলে নিতে বাদিকে হুমকিঃ থানায় জিডি

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (স্টাফ রিপোর্টার): বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে আলোচিত বদরুল ইসলাম হত্যা মামলা তুলে নিতে বাদিকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে থানায় জিডি করা হয়েছে। এদিকে মামলাটি সঠিক ভাবে তদন্ত করতে সিআইডি’র কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত ১২ জুন/১৯ বুধবার দিবাগত রাতে বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলার নারচী ইউনিয়নের শেখাহাতী গ্রামের হাসেন আলীর পালিত পুত্র নিহত বদরুল ইসলামকে
একই গ্রামের কয়েকজন মুখ চেনা প্রভাবশালী ব্যক্তি বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর হাসেন আলী নামের এক ব্যক্তির বাড়িতে নিয়ে গিয়ে নির্মম ও নিষ্ঠুর নির্যাতন চালানোর এক পর্যায়ে ভোর হয়ে যায়। তখন ওয়াসিম নামে এক আসামী বদরুলকে স্থানীয় মসজিদের সামনে নিয়ে গিয়ে প্রকাশ্যে দিবালোকে নির্যাতন চালায়। এ সময় নিহত বদরুলের গোপনাঙ্গে লোহা ঢুকিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি হাত ও পায়ের গিটা ভেঙ্গে দেয়। তাছাড়াও গায়ে সিগারেটের আগুনের ছ্যাঁকা দেয়া হয়।
এ বিষয়ে নিহত বদরুলের স্ত্রী মোছাঃ মাবিয়া বেওয়া বাদি হয়ে গত ১৩ জুন/১৯ তারিখে স্থানীয় ইউপি সদস্য জাকির হোসেন তেনজু, ওয়াসিম, হাসেন আলী, আকিল, ফকরে, খোরশেদ আলম, আজল, সবুজ, পিন্টু, লিটন সহ ১০ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করে। এরপর ২৩ জুন ১৯ তারিখে মামলাটি সিআইডির কাছে হস্তান্তর হয়। দীর্ঘ প্রায় ১ মাস পলাতক থাকার পর ওই মামলার আসামীরা হাইকোট থেকে আগাম জামিন নিয়ে এলাকায় এসে মামলা অভিযুক্ত আসামী ও একই গ্রামের সোলেমান মিয়া, মহাতাব, আল আমিন, শহিদুল ইসলাম, হাসেন আলী প্রামানিক, আশরাফ আলী প্রামানিক, বারিক মোল্লা, ইউনুছ প্রামানিক, সাধু মন্ডল বাদিকে প্রাণনাশের হুমকি সহ মামলা তুলে নিতে বলে। এ বিষয়ে গত ১৭ জুলাই ১৯ তারিখে থানায় জিডি করা হয়েছে। জিডি নং-৬৩৮।
এ বিষয়ে সারিয়াকান্দি থানার ওসি আল আমিন জানান, এ বিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।

 

One comment

  1. Azizul says:

    আজ থেকে ১৯ বছর আগে আমার কোরবানির খাসি চুরি হয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজি করার পর তা বদরুলের বাড়ি হতে আমি নিজে বের করি।। সে চোর ছিল কিনা জানিনা !

Leave a Reply

16 − 3 =

সর্বশেষ সংবাদ