Menu

সারিয়াকান্দিতে ভ্যান চালক স্বামীকে ছেলেধরা সাজিয়ে গণপিটুনীর আয়োজনঃ স্ত্রীসহ গ্রেফতার ৩

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (পাভেল মিয়া, ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি): বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে পারিবারিক কলহের জেরে রিবুন (২৩) নামে এক যুবককে ছেলেধরা সাজিয়ে গণপিটুনীর আয়োজনের অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সারিয়াকান্দি উপজেলার কাঁঠালতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এসআই সুব্রত কুমার ঘোষ নেত্বত্বে সঙ্গীয় ফোর্স এ এসআই শফিউল আলম, শিরিন আক্তার, আরিফুল আযম, জাহাঙ্গীর আলমসহ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সারিয়াকান্দি বাজার থানা মোড় থেকে তার স্ত্রী, শ্বশুর ও শাশুড়িকে গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন- সারিয়াকান্দি সদর ইউনিয়নের চর গোসাইবাড়ি গ্রামের মৃত সাহেব আলীর ছেলে পেশাদার ভিক্ষুক সিফাত প্রামাণিক (৪৬), তার স্ত্রী বিউটি বেগম (৩৬) ও মেয়ে শিরিন আকতার (২০)।
রিবুন হোসেন সারিয়াকান্দি উপজেলার নারচি ইউনিয়নের গণকপাড়া গ্রামের আমিরুল ইসলামের ছেলে। তিনি পেশায় ভ্যানচালক।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রিবুন হোসেনের সঙ্গে কয়েক বছর আগে সদর ইউনিয়নের চরগোসাইবাড়ি গ্রামের সিফাত প্রামাণিকের মেয়ে শিরিন আকতারকে বিয়ে করেন। তাদের সংসারে দুই বছরের একটি ছেলে আছে।
সংসারে অভাব ও দাম্পত্য কলহে শিরিন কিছু দিন আগে ভিক্ষুক বাবার বাড়িতে চলে যান। রিবুন স্ত্রী-সন্তানের খরচ না দিলেও মাঝে মাঝে শ্বশুরবাড়িতে এসে ছেলেকে দেখে যেতেন।
এদিকে শিরিন ও তার বাবা-মা রিবুনকে শায়েস্তা করার পরিকল্পনা করেন। তারা মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে রিবুনকে সারিয়াকান্দি বাজারে থানা মোড়ে ডাকিয়া আনে। রিবুন সরল বিশ্বাসে সেখানে আসার পর তার ছেলেকে কোলে নিয়ে আদর করছিলেন। একপর্যায়ে ছেলেকে বাড়িতে নিয়ে যেতে চান। তখন স্ত্রী শিরিন আপত্তি করেন। এ সময় হঠাৎ করেই শিরিন ও তার বাবা-মা ছেলেধরা বলে চিৎকার দিতে থাকেন। তাদের চিৎকার শুনে আশপাশের জনগণ সেখানে ছুটে আসেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে থানা পুলিশও আসে। এ সময় রিবুন পালিয়ে প্রাণ রক্ষা করেন। ঘটনার বিস্তারিত জানার পর গুজব বলিয়া মনে হওয়ায় রিবুনের স্ত্রী শিরিন, শ্বশুর সিফাত ও শাশুড়ি বিউটিকে গ্রেফতার করে।
এ বিষয়ে সারিয়াকান্দি থানার ওসি আল আমিন জানান, পারিবারিক কলহের জেরে ভ্যানচালক রিবুনকে শায়েস্তা করতেই তাকে ছেলেধরা সাজানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। এ ঘটনায় জড়িত থাকায় তার স্ত্রী, শ্বশুর ও শাশুড়িকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এবং আসামীদের বিরুদ্ধে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৬ (২) ধারায় নিয়মিত মামলা দায়ের করে তাদেরকে বিঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

No comments

Leave a Reply

3 + twelve =

সর্বশেষ সংবাদ