Menu

সারিয়াকান্দিতে যমুনা নদীর চর থেকে ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধারঃ স্ত্রী ও শ্যালক আটক

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (পাভেল মিয়া,ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি): বগুড়ার সারিয়াকান্দি যমুনা নদীর চর থেকে ফেরদৌস আলম রতন (৪৫) নামে এক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করেছে সারিয়াকান্দি থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে দেবডাঙ্গা গ্রোয়েন বাধের সামনের চর থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।
নিহত রতন সারিয়াকান্দি উপজেলার কর্নিবাড়ী ইউনিয়নের কাশিয়াহাটা (বর্তমান বিমান বন্দরপাড়া) গ্রামের মোস্তাফিজার রহমান ফকিরের ছেলে।
এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে তার স্ত্রী রুপা-শ্যালককে আটক করেেছ পুলিশ।
স্থানীয় ও পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে স্বামী ও স্ত্রীর মাঝে ঝগড়া-বিবাদের সৃষ্টি হয়। বুধবার রাতে ফেরদৌস আলম রতনকে বাড়ি থেকে এক ব্যাক্তি ডেকে নিয়ে যায়। এর পর থেকে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরে রাতে আর রতন বাড়িতে ফিরে আসে নাই।
বৃহস্পতিবার বিকেলে রতনের লাশের খবর পেয়ে নিহতের বাবা ও পরিবারের লোকজন সেখানে পৌঁছে তার ছেলেকে শনাক্ত করেন। পরে পুলিশ খবর পেয়ে শুক্রবার সকালে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।
স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা ও পরিবারে সদস্যদের ভাষ্যমতে, স্ত্রী রুপা রতনকে হত্যা করেছেন। স্ত্রী পরকীয় প্রেমিকের সঙ্গে করেই রতনকে হত্যা করেছেন। পরিবারে সদস্যরা আরো বলেন, বৃহস্পতিবার এনজিও থেকে এক লক্ষ টাকা লোন নেয় নিহতের স্ত্রী রুপা। এমনকি বগুড়ার নারুলী কাপড়ের দোকান থেকে কাপড় নিয়ে তার বাবার বাড়িতে রেখে আসেন। নিহতের বড় ছেলে সাদিক বলেন, আব্বু ও আম্মু রাতে ঝগড়া করেছিল।
সারিয়াকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আল আমিন বলেন, নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া শজিমেক হাসপাতালরে মগে প্রেরণ করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্ত্রী রুপা ও শ্যালককে আটক করা হয়েছে। তার কাছ থেকে ঘটনার সত্যতা বেড়িয়ে আসলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা নেওয়া হবে।

No comments

Leave a Reply

12 + 5 =

সর্বশেষ সংবাদ