Menu

সারিয়াকান্দিতে স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেফতার

পাভেল মিয়া, ভ্রাম্যমান প্রতিনিধিঃ বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলার চাঞ্চল্যকর স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলার এজাহার নামীয় আসামি মোঃ আলমগীর হোসেন আলম (২০) কে গ্রেফতার করেছে সারিয়াকান্দি থানা পুলিশ । গ্রেফতারকৃত মোঃ আলমগীর হোসেন আলম (২০) সারিয়াকান্দি উপজেলার বাটিয়া চরের নাহারুল ইসলামের ছেলে।

সারিয়াকান্দি থানা পুলিশ জানায়, বুধবার রাত ১০ টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই রাজ্জাকের নেতৃত্বে নিজবাটিয়া চর এলাকায় অভিযান চালিয়ে সারিয়াকান্দি থানার চাঞ্চল্যকর ধর্ষণ মামলার আসামি মোঃ আলমগীর হোসেন আলমকে গ্রেফতার করা হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ধর্ষণের শিকার ৯ম শ্রেনীর ছাত্রী স্কুলে যাওয়া আসার পথে শামীমের প্রেম ভালবাসার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত ১৬ আগষ্টে সকালে বেড়ানোর কথা বলে সারিয়াকান্দি কালিতলা ঘাট হইতে নৌকা যোগে নিজবাটিয়া চরে নিয়ে যায়। নৌকার মাঝিকে কৌশলে নৌকা হইতে কিছু দূরে পাঠিয়ে শামীম ছাত্রীকে তাহার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।

 

এ সময় তার চিৎকার শুনে মাঝি দৌড়ে এসে শামীমকে বাধা প্রদান করে। মাঝি ছাত্রীকে ও ধর্ষক শামীমকে নিয়ে কালীতলা উদ্দেশ্যে রওনা করিলে মোঃ আলমগীর হোসেন আলমসহ এজাহার নামীয় আসামীসহ নৌকা যোগে এসে যমুনা নদীর মাঝপথে আটকিয়ে ধর্ষক শামীমের সাথে পরামর্শ করে তাদের নৌকাতে ছাত্রীকে তুলে নেয়। দুর থেকে পুলিশের টহল দল দেখতে পেয়ে ধর্ষণের শিকার ছাত্রী বাচাও বাচাও চিৎকার করে।

 

পুলিশ চিৎকার শুনে তাকে উদ্ধার করে সারিয়াকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্রেক্স চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে। এদিকে পুলিশের উপস্থিতি দেখতে পেয়ে ধর্ষক ও অজ্ঞাত আসামীগণ পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে সারিয়াকান্দি থানায় মামলা দায়ের করেন। ঘটনার পর থেকেই মোঃ মোঃ আলমগীর হোসেন আলম পালিয়ে বেড়াচ্ছিল।

এ ব্যাপারে সারিয়াকান্দি থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আল-আমিন বিষয়টি নিশ্চিত করে এ প্রতিবেদক-কে জানান, ঘটনাটি সঠিক । গোপন সংবাদের ভিক্তিতে গত বুধবার রাতে উপজেলার নিজবাটিয়া চর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এবং আসামীকে মামলা সুষ্ট তদন্তের স্বার্থে সাত দিনের পুলিশি রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে।

No comments

Leave a Reply

eighteen + fourteen =

সর্বশেষ সংবাদ