Menu

সােনাতলায় ইরি-বোরো ধানে চিটাঃ কৃষকদের সােনালী স্বপ্ন কালছে হচ্ছে

আল মামুনঃ বগুড়ার সােনাতলা উপজেলায় ইরি বােরা ধানের শীষ বের হয়েছে। কিছু দিনের মধ্যই ধান পেঁকে সােনালী রং হওয়ার কথা গােটা মাঠ। তাপমাত্রা ওঠানামা ও ঝড়াে হাওয়ার কারণে ধানের মুকুল পড়ে যাওয়ায় শীষের ধান কালাে হয়ে গেছে। এতে দূশ্চিন্তায় পড়েছে কৃৃষকরা। উপজেলা কৃষি অফিস বলছে, স্বাভাবিক তাপমাত্রা না থেকে তাপমাত্রা ওঠা নামা করায় এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

সােনাতলা উপজেলা কৃষি অফিস থেকে জানাগেছে, উপজেলায় এবার ইরি-বােরাে ধানের জন্য ১০৫৮৫ হেক্টর জমি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও অর্জিত হয়েছে ১০৫৯০ হেক্টর জমির চাষাবাদ। আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে ভাল ফলনের আশা করেছিল কৃৃষি বিভাগ।

আজ শনিবার উপজেলার জােড়গাছা, সােনাকানিয়া, মধ্য দিঘলকান্দী, নওদাবগা, ঠাকুরপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, আগাম জাতের বিআর ২৮ ধানের শীষ এসেছে। কিছু দিনের মধ্যই শীষ সােনালী বর্ণ ধারন করার কথা। এরই মধ্য অনেক জমির প্রায় ৬০-৭০শতাংশ শীষের ধান কালো হয়ে চিটা হয়েছে। এতে কৃষকদের মধ্য দূশ্চিন্তা দেখা দিয়েছে।

 

সােনাকানিয়া গ্রামের কৃষক আব্দুর রহমান, দিঘলকান্দী গ্রামের জাহিদুল ইসলামসহ অনেকে জানিয়েছে, ধানের গাছ থেকে শীষ বর হওয়ার পর শীষের ধানগুলাে কালাে হয়ে যাচ্ছে। এতে প্রতি বিঘা জমিতে ২০ থেকে ২৫মণ ধান হওয়ার কথা। কিন্তু বিঘায় ৫মণ ধান হবে কিনা সন্দেহ আছে। এতে তারা দুশ্চিন্তায় পড়েছেন বলে জানান তারা।

 

এব্যাপারে সােনাতলা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাসুদ পারভেজ বলেছেন, তাপমাত্রা ওঠানামা এবং সম্প্রতি ঝড় বাতাসের কারণে ধানের মুকুল ঝড়ে যাওয়ায় এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বলেন, এখন যেগুলার শীষ আসছে সেগুলার কােনও সমষ্যা হবেনা।

No comments

Leave a Reply

one × 5 =

সর্বশেষ সংবাদ