Menu

সুখানপুকুর কাতলাহারে শতবিঘা বিলে মাছচাষঃ বন্যার পানিতে ভেসে গেছে অর্ধকোটি টাকার মাছ

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (মুহাম্মাদ আবু মুসা): বগুড়া গাবতলীর গোলাবাড়ীতে স্থানীয় রানিরপাড়া ও মড়িয়া মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিমিটেড এর সদস্যরা সরকার থেকে ইজারা নেয়া শতবিঘা বিল কাতলাহারে ছেড়ে দেয়া শতাধিক মন মাছ বন্যার পানিতে বের হয়ে ভেসে গেছে। ফলে মৎস্যজীবিদের প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষতি সাধন হওয়ায় তাদের এখন মাথায় হাত পড়েছে। জানা গেছে, উপজেলার মহিষাবান ইউনিয়নের অর্ন্তগত বিল কাতলাহারটি ৩২একর ৪৬শতক অর্থাৎ ৯৭বিঘা ১৩শতক এর জমির উপর রয়েছে। এই বিল থেকে সরকার প্রতি বছর প্রায় সাড়ে ৬লাখ টাকা রাজস্ব আয় করে থাকে। প্রায় ৪০লাখ টাকা ব্যয়ে বিলের চার পাশ দিয়ে এবার সরকারীভাবে পাড় বেঁধে দেয়ায় মৎস্যজীবিরা আরো নিরাপদ মনে করে আনন্দের সাথে প্রচুর পরিমান মাছ ছেড়ে দেয়। কিন্তু শুধু পাড় নয়, মৎস্যজীবিরা বিলের চার পাশে জাল দিয়ে বেড়া তৈরী করেও ছেড়ে দেয়া মাছগুলো রাখতে পারেনি। বন্যার ব্যাপক পানিতে বের হয়ে ভেসে গেছে ছেড়ে দেয়া শত শত মন মাছ। এতে করে রানিরপাড়া ও মড়িয়া মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিমিটেড এর সদস্যদের প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষতি সাধন হওয়ায় তাদের এখন মাথায় হাত পড়েছে। কারন মৎস্যজীবিরা বিভিন্ন ব্যাংক এবং এনজিও থেকে ঋন নিয়ে মাছ চাষ করছিল। তাদের স্বপ্ন ছিল বিল কাতলাহারে মাছ চাষ করে সাবলম্বী হবে। এখন স্বপ্ন ভেঙ্গে গিয়ে ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে চলতে হবে। এ ব্যাপারে রানিরপাড়া ও মড়িয়া মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিমিটেড এর সভাপতি ওয়াজেদ হোসেনের সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমরা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তাই সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সরকারের নিকট সহযোগিতা কামনা করছি। এ বিষয়ে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোছাঃ আয়েশা খাতুনের সাথে কথা বললে তিনি জানান, বিল কাতলাহারসহ আরো কয়েকটি জলাশয়ে ছেড়ে দেয়া মাছ বন্যার পানিতে বের হয়ে গিয়ে মৎস্যজীবিরা বেশ ক্ষতির মুখে পড়েছে।

No comments

Leave a Reply

seventeen − 10 =

সর্বশেষ সংবাদ