Menu

সোনাতলার মধুপুর ইউনিয়নবাসী সুখে দুখে যাকে পাশে পায় তাকেই নির্বাচিত করবে

বদিউদ-জ্জামান মুকুল সোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের ভোটাররা নড়ে চড়ে বসেছে। তারা বলেছেন এবার বসন্তের কোকিলদের এলাকায় ভীড়তে দেবে না। যাকে তারা সুখে দুখে পাশে পায় তাকেই নির্বাচিত করবে। আর সেক্ষেত্রে সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে ভোটারদের মুখে মুখে নাম উঠে এসেছে নাফিম কনজুমার প্রডাক্টের সত্ত¡াধিকারী ও মধুপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নির্বাহী সদস্য সাইফুল ইসলামের। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে নৌকা প্রতীক বরাদ্দ দেওয়ার জন্য দলের হাই কমান্ডের প্রতি ওই এলাকার ভোটাররা দাবি তুলেছেন। মধুপুর ইউনিয়নে সম্ভাব্য প্রার্থী তালিকায় ভোটারদের মুখে মুখে ৬ জন প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে। তারা হলেন, মোঃ সাইফুল ইসলাম, দবির হোসেন মন্ডল, অসীম কুমার জৈন নতুন। তবে সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে জনপ্রিয়তায় শীর্ষে রয়েছেন সাইফুল ইসলাম।
ইতিমধ্যেই সম্ভাব্য প্রার্থীরা এলাকায় লিপলেট, পোস্টার, ব্যানার, ফেসটুন টানিয়ে দিয়ে ভোটারদের দৃষ্টি কেড়েছে। নির্বাচনকে সামনে রেখে এবার ওই এলাকার ভোটাররা একজন কর্মবীর মানুষকে খুুঁজছে। সেক্ষেত্রে সাইফুল ইসলামের নাম এসেছে প্রথমে।
যমুনা ও বাঙালী নদীর মধ্যবর্তী ইউনিয়ন মধুপুর। ওই ইউনিয়নের প্রায় ৮৫ ভাগ মানুষ সরাসরি কৃষি কাজের সাথে জড়িত। প্রকৃতির সাথে লড়াই সংগ্রাম করে টিকে থাকাই তাদের যেন দৈনন্দিন চ্যালেঞ্জ। বিগত দিনে স্থানীয় নির্বাচনে বিজয়ী জনপ্রতিনিধিরা শুধু সরকারী অনুদান ছাড়া এলাকার অসহায় দরিদ্র মানুষের পাশে গিয়ে কেউ কখনও এক মুহুর্তের জন্য দাঁড়ায়নি বলে ভোটারদের অভিযোগ রয়েছে। তবে সেক্ষেত্রে ব্যতিক্রম ধর্মী সাইফুল ইসলাম। তিনি নন কোন জনপ্রতিনিধি তারপরও তার সাহায্য সহযোগিতার হাত কখনও থেমে নেই। নেই দিন-রাত মানুষের বিপদের কথা শুনলেই ছুড়ে গিয়ে পাশে দাঁড়ায় সাইফুল ইসলাম। এমনকি ওই এলাকার শতশত বেকার যুবক-যুবতীর কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়ে এলাকার মানুষের মনিকোঠায় স্থান দখল করে নিতে সক্ষম হয়েছেন তিনি।
তিনি এলাকায় প্রয়াত সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের নামানুসারে তেকানীতে আব্দুল মান্নান বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ও অটিজম বিদ্যালয়ের স্থাপন, পূর্ব তেকানী ইয়াকুবিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা, সাতবিল প্রতিদিনের প্রকাশক, জাতির জনক শিক্ষা গবেষণা পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা, কোভিড-১৯ প্রেক্ষিত বাংলাদেশ নামক একটি গ্রন্থ প্রকাশ করেছেন। যে বইটিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকান্ড উঠে এসেছে। এছাড়াও বইটিতে করোনাকালীন সময় ও পরবর্তীতে কিভাবে ভালো থাকা যায় সে বিষয়ে গ্রন্থটিতে বিস্তারিত তুলে ধরা হয়েছে।
এ বিষয়ে সাইফুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, জনসেবার পাশাপাশি আমি ক্যান্সার, জন্ডিস, হেপাটাইটিস-বি’র মতো জটিল ও কঠিন রোগ থেকে মানুষ যাতে রক্ষা পায় এজন্য আমি ইতিমধ্যেই নিরাপদ ও ভেজালমুক্ত খাদ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। নাফিম হলুদ, গুড়া মরিচ বগুড়া সহ উত্তরবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলার মার্কেটগুলো ইতিমধ্যেই দখল করে নিয়েছে। তিনি আরও জানান, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তাকে দল থেকে মনোনয়ন দেওয়া হলে তিনি বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন।

No comments

Leave a Reply

20 + fifteen =

সর্বশেষ সংবাদ