Menu

সোনাতলায় আ’লীগ নেতা কমরেডের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে এলাকাবাসীর ঝাড়ু মিছিল

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (লতিফুল ইসলাম, সোনাতলা): বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নবীন আনোয়ার কমরেডের ওপর হামলা ও চাঁদা দাবীর ঘটনায় সোনাতলা থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। হামলার শিকার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নবীন আনোয়ার কমরেড বাদি হয়ে অভিযোগ দায়ের করেন।

গত ০২ নভেম্বর তারিখে সোনাতলা থানায় লিখিত অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেছেন, সোনাতলা উপজেলার রানীরপাড়া গ্রামে তার চাতাল ও চাউল কলে গিয়ে একাধিক মামলার আসামী, নারী নির্যাতনকারী, চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী মোঃ গোলাম রব্বানী মিন্টু (৪৮) পিতাঃ মৃত বাচ্চু, মোঃ শহীদ (৩০) ও মোঃ সাঈদ (২৮) উভয়ের পিতাঃ আশরাফ, হারুন (২৫) পিতা মোঃ আব্দুর রশিদ, মোঃ পাভেল, পিতাঃ সোলেমান (সকলের গ্রাম সুজাইতপুর, উপজেলা সোনাতলা ও জেলা বগুড়া) অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জন সহ আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এসে আমার নিকট প্রতি মাসে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে। আমি তাদের দাবী অগ্রাহ্য করলে তারা বিভিন্নভাবে আমার ও পরিবারের ক্ষতি করার সুযোগ খুঁজতে থাকে।

এরই এক পর্যায়ে গত ১-১১-১৯ তারিখ বিকেলে ব্যবসার কাজ শেষে বাড়ীতে ফেরার সময় সোনাতলা উপজেলা পরিষদের দক্ষিণ পার্শ্বের গেটে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা এজাহারে উল্লেখিত ব্যক্তিগণ ককটেলসহ মারাত্মক অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে, বেআইনী জনতায় দলবদ্ধ হয়ে আমাকে ঘিরে ধরে। সেখানে গোলাম রব্বানী মিন্টুর নির্দেশে লোহার রড ও পাইপ দিয়ে আমাকে আঘাত করে। এতে আমি গুরুতর আহত হই। এ অবস্থায় আমার কাছে ব্যাগে রাখা ধান বিক্রির ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় আসামী সাঈদ। আমি টাকা উদ্ধারের চেষ্টা করলে তারা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এ সময় গোলাম রব্বানী মিন্টু টাকার ব্যাগটি হাতে নিয়ে বলতে থাকে প্রতি মাসে টাকা দিবি, না দিলে তোকে ও তোর পরিবারের সদস্যদের যেখানে পাবো সেখানেই হত্যা করে লাশ গুম করবো ও মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেব।

 

এ ব্যাপারে সোনাতলা থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) জাহিদ হোসেন জানিয়েছেন, ‘এ ঘটনায় একটি মামলা জমা দিয়েছে। প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।’
ঘটনার শিকার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নবীন আনোয়ার কমরেড জানান, ‘যারা আমাকে হামলা করেছে তারা এলাকার চিহ্নিত দুষ্কৃতকারী। এমন কোন অপরাধ নেই যার সঙ্গে তারা জড়িত নেই। আমি এ অপরাধী চক্রের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।’

 

এ দিকে এ ঘটনার প্রতিবাদে রোববার সন্ধ্যায় সোনাতলায় ঝাড়ু মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে সোনাতলার সাধারণ জনগণ। মিছিল শেষে স্থানীয় সোনালী ব্যাংকের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশে হামলাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে বক্তব্য রাখেন পৌরসভার প্যানেল মেয়র তাহেরুল ইসলাম, বাংলাদেশ মানবাধীকার কমিশন সোনাতলা উপজেলা শাখার সভাপতি ও আওয়ামী লীগ নেতা নাজিম উদ্দীন লাজু, পৌর কাউন্সিলর ও সোনাতলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিপুন আনোয়ার কাজল, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ফিদা হাসান খান টিটো, পৌর যুবলীগের আহŸায়ক নাহিদ হাসান জিতু, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সুজন কুমার ঘোষ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অধ্যক্ষ আব্দুল মালেক, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিস্টার, সদস্য আবুল কালাম আজাদ, সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বাবলু মিয়া, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল হাসান রতন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম আহŸায়ক শামীম রাব্বী প্রমূখ।

No comments

Leave a Reply

12 − four =

সর্বশেষ সংবাদ