Menu

সোনাতলায় ইউপি চেয়ারম্যান পদে স্বামী-স্ত্রীর ভোটযুদ্ধঃ প্রতিদ্বন্দ্বীতা না কৌশল!

আব্দুর রাজ্জাক, সোনাতলাঃ বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে আগামী ৩১ জানুয়ারী নির্বাচনকে সামনে রেখে সোনাতলা সদর ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ভোটযুদ্ধে নেমেছেন স্বামী জাকির হোসেন বেলাল ও তার স্ত্রী রোকসানা বেগম।

ভোটযুদ্ধে স্বামী জাকির হোসেন বেলাল আনারস প্রতিক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আর তার স্ত্রী রোখসানা বেগম চশমা প্রতিক নিয়ে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন।

এবিষয়ে স্বামী জাকির হোসেন বেলালকে স্বামী স্ত্রীর ভোটে অংশগ্রহনের কথা জানতে চাইলে তিনি জানান, নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত দুজনে থাকবো। ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার অধিকার সবার আছে। স্বামী-স্ত্রী বলে কোনো কথা নেই।
জনগণের জনপ্রিয়তা এবং নির্বাচনে যে বিজয় হবে সেই চেয়ারম‍্যান।

তিনি আরও জানান, কিছু কিছু ভোট কেন্দ্রে আমার এ‍্যাজেন্ট থাকতে আশংঙ্খা মনে করছেন। স্বামী-স্ত্রী প্রার্থী জনগণের কাছে ভোট কিভাবে চাইবেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, মূলত আমার জন‍্যই ভোট চাওয়া। আমার প্রতিদ্বন্দি নৌকা মার্কার প্রার্থী নানা ধরনের এলাকায় গুজব ছড়াচ্ছে। আমি চিন্তা করছি যদি প্রতিপক্ষ কোনো হয়রানী ষড়যন্ত্র বা মিথ‍্যাভাবে মামলা করে জেলে পাঠায় সেক্ষেত্রে আমার স্ত্রী যেন ভোট করতে পারে এটা আমার কৌশল মনে করতে পারেন।

বর্তমান সরকারের আমলে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহন এটা কিভাবে দেখছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ইতি মধ‍্যেই পার্শ্ববতি পৌরসভার ভোটের মাধ‍্যমে বুঝতে পারছি ১০০ ভাগ স্বচ্ছতার ভিত্তিতে ইভিএম পদ্ধতি ভোট গ্রহন হয়। আমি নিশ্চিত ভাবে বলতে পারি জনগণ যদি সুন্দর ও সুষ্ঠ পরিবেশে তাদের ভোট প্রয়োগ করতে পারে তবে নির্বাচনে আমি বিজয়ী হবো বলে আশা করি। অতিতে সফলতার সাথে মেম্বারের দায়িত্ব পালন করছি। দুই দুবার চেয়ারম‍্যান নির্বাচিত হয়ে ইউনিয়ন বাসীর কাছে আস্থা অর্জন করতে পারছি বলে আমি মনে করি।

অপরদিকে, স্ত্রী রোকসানা বেগমকে স্বামী-স্ত্রীর প্রতিদ্বন্দিতার কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার স্বামীকে যেমন ইউনিয়ন বাসীর মানুষ ভালোবাসে, ঠিক তেমনি আমাকেও মানুষ ভালোবাসে সে কারনে দুজনে প্রার্থী। মানুষ ভোট দিয়ে যাকে নির্বাচিত করবে সেই হবে চেয়ারম‍্যান।

স্বামী জাকির হোসেন বেলালের আনারস মার্কার নির্বাচনী এলাকায় পোস্টার, ব্যানার, মাইকিং করে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালালো হচ্ছে কিন্তু এলাকায় এখন পর্যন্ত চশমা মার্কার কোনো প্রকার প্রচার- প্রচারণা কিংবা গণসংযোগ করতে দেখা যায়নি এমনকি আপনার কোনো পোস্টার বা ব্যানারও চোখেও পড়েনি জানতে চাইলে, তিনি বলেন পোষ্টার তৈরীর অর্ডার দেওয়া আছে সম্পন্ন হয়ে হাতে আসলে পোষ্টার ঝুলালো হবে।

আসন্ন ৬ষ্ঠ ধাপে বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনে ৪০জন চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ‍্যে সোনাতলা সদর ইউনিয়নে ৩জন চেয়ারম‍্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আগামী ৩১ জানুয়ারী এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

No comments

Leave a Reply

11 + 13 =

সর্বশেষ সংবাদ