Menu

সোনাতলায় করোনায় লকডাউনেও চলছে এসএসসি’র ফরমফিলাবঃ চলছে বাড়তি অর্থ আদায়

সোনাতলা প্রতিনিধিঃ বগুড়া সোনাতলা পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এস এস সি পরীক্ষার্থীদের ফরম ফিলাবের জন্য অতিরিক্ত টাকা নেওয়া হচ্ছে।

দেশ জুড়ে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রচন্ড ভাবে বেড়ে যাওয়ায় ৫ এপ্রিল থেকে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশে লকডাউনের ঘোষনা দেয় সরকার। সেই সাথে সকল সরকারী ,আধাসরকারী,স্বায়িত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান সীমিত আকারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশ প্রদান করা হয় ৷ এছাড়া সকল ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষনা করা হয়।

এর আগে এস এস সি পরীক্ষার্থীদের ফরম ফিলাপের প্রক্রিয়া ১ এপ্রিল থেকে ৭ এপ্রিল পর্যন্ত ছিল। কিন্তু গতকাল সোমবার আন্তঃশিক্ষা সমন্ময় বোর্ড থেকে জানা গেছে, করোনা প্রাদুরভাব বেড়ে যাওয়ার কারনে তা স্থগিত করা হয়। অপরদিকে কোন তোয়াক্কা না করে নিজেদের ইচ্ছামতো স্বাস্থ্যবিধি না মেনে ফরম ফিলাপের টাকা আদায় করছে প্রতিষ্ঠানটি। যেখানে সরকার নির্ধারিত ফি এর অধিক টাকা গ্রহন করা হচ্ছে।

এমনকি প্রত্যেক ছাত্রীদের কাছে থেকে ২০২০ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বিদ্যালয়ের বেতন নেওয়া হচ্ছে।

রাজশাহী বোর্ডের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বোর্ড ফি মানবিক বিভাগে নির্ধারন করা হয় ১৮৮০ টাকা এবং বিজ্ঞান বিভাগে ১৯৮০ টাকা নির্ধারন থাকলেও এই প্রতিষ্ঠানটি মানবিক বিভাগে প্রত্যোক শিক্ষার্থীদের কাছে থেকে ২১০০ ও বিজ্ঞান বিভাগে ২২০০ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে বলে জানান শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা ।

এমন সংবাদের তথ্য সংগ্রহের সময় ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু সাইদ মোঃ মনোয়ারুল ইসলামের সাথে মোবাইলে কথা বললে তিনি ফি নেওয়ার বিষয়টি শিকার করেন ৷এক পর্যায়ে তিনি ওই সাংবাদিকের সাথে খারাপ আচরনও করেন ৷এ বিষয়ে ওই সাংবাদিক বাদি হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন ।

এব্যাপারে সোনাতলা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আজিজার রহমান জানান, বোর্ড নির্ধারিত ফি এর বাহিরে কোনও টাকা নেওয়ার সুয়োগ নেই। এমন কাজ কোন প্রতিষ্ঠান করলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে ৷

বিষয়টি নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া আফরিনের সাথে মোবাইলে কথা বললে তিনি জানান, সত্যতা পেলে অবশ্যই ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

No comments

Leave a Reply

4 × five =

সর্বশেষ সংবাদ