Menu

সোনাতলায় গৃহবধুকে উত্যক্ত করায় মারপিটে অটোচালক আহত

সোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার দিগদাইর ইউনিয়নের বাঁশহাটা গ্রামে গৃহবধুকে উত্যক্ত করার জেরে মারপিটে অটোচালক আব্দুস ছালাম আহত হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ছালাম উত্তর বাঁশহাটা (টিকরপাড়া) গ্রামের মৃত উমর আলী ছেলে।

 

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার দিগদাইর ইউনিয়নের উত্তর বাঁশহাটা গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল গফুর এর বিবাহিত নাতনীকে ওই অটোচালক দির্ঘদিন যাবৎ উত্যক্ত করে আসছে।

 

এরই জেরে ১৫ জুন মঙ্গলবার বিকালে ওই অটোভ্যান চালক গফুরের বাড়ির সামনে রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় গৃহবধুকে উত্যক্ত করে যায়। ফেরার পথে ওই গৃহবধু ও তার মা মালা বেগম এবং নানী বুলি বেগম ওই অটোভ্যান চালককে উত্যক্তমূলক কথা বলার কারণ জিজ্ঞাসা করলে তাদের মধ্যে হাতা-হাতির ঘটনা ঘটে। এতে অটোভ্যান চালক ছালাম আহত হয়ে সোনাতলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি হয়।

 

এব্যাপারে আহত ছালাম জানান, পূর্বের একটি মামলার জেরে প্রতিপক্ষরা তাকে অতর্কীত ভাবে হামলা চালিয়ে মারপিট করে তার অটোভ্যানটি ছিনিয়ে নেয়।

 

এ বিষয়ে ওই গৃহবধুর নানা আব্দুল গফুর জানান, প্রায় এক বছর আগে তার নাতনীকে একই ইউনিয়নের নুরারপটল গ্রামে মোশারফের সাথে বিবাহ হয়। বিবাহের পর থেকেই মোশারফ ও ছালামের মধ্যে বন্ধুত্ব হয়। এরই সুবাদে ছালাম মোশারফের নিকট থেকে কিছু টাকা ধার নেয়। ওই টাকা ফেরত চাইলে তালবাহানা শুরু করে ছালাম।

 

এক পর্য়ায়ে মোশারফ ছালামের অটোভ্যানটি আটকিয়ে দিয়ে টাকা উদ্ধার করে। পরে ছালাম মোশারফের স্ত্রীর নামে বিভিন্ন কুৎশা রটায়। বিষয়টি শেষ পর্যন্ত গৃহবধু ও তার স্বামীর মধ্যে সংসার ছাড়ার উপক্রম হলে আদালতে মামলা হয়। মামলায় জামিনে এসে আবারও ১৫ জুন মঙ্গলবার ওই ছালাম ক্ষিপ্ত হয়ে রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় ওই গৃহবধুকে দেখে উত্যক্ত মূলক কথা বলে।

 

আব্দুল গফুরসহ এলাকাবাসী জানান, ওই ঘটনার সময় আব্দুস ছালামের সাথে হাতাহাতির ঘটনা ঘটলে ছালাম তার অটোভ্যানটি রেখে চলে যায়।

 

এবিষয়ে থানার সেকেন্ড অফিসার ইয়ামিন আলী জানান, উভয় পক্ষই থানায় এসেছিলো তাদের মৌখিক অভিযোগের প্রেক্ষিতে অটোভ্যানটি উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

No comments

Leave a Reply

thirteen + five =

সর্বশেষ সংবাদ