Menu

সোনাতলায় গৃহবধু রেখার জীবন কবিরাজী চিকিৎসায় নিভে গেল!

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (বদিউদ-জ্জামান মুকুল, সোনাতলা): বগুড়ার সোনাতলায় গৃহবধু রেখা’র জীবনে কবিরাজী চিকিৎসায় কাল হলো। অবশেষে তাকে এই সুন্দর পৃথিবীর আলো বাতাস ছেড়ে যেতে হলো না ফেরার দেশে। তার অকাল মৃত্যুতে ওই পরিবারে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের গোসাইবাড়ী গ্রামের মৃত তফিজ উদ্দিন প্রামানিকের কনিষ্ঠ কন্যা রেখা খাতুন (২৫) গত প্রায় ১২/১৩ বছর পূর্বে রংপুর জেলার পীরগাছা উপজেলার রামচন্দ্রপাড়া গ্রামের জনৈক খালেক শাহ’র একমাত্র পুত্র মোঃ আইয়ুব হোসেনের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের ২/৩ বছরের মাথায় তাদের দাম্পত্য জীবনে একটি পুত্র (রিয়াদ বাবু) সন্তানের আবির্ভাব ঘটে।

সন্তানটি জন্মের ৫/৬ মাসের মাথায় আকস্মিক মৃত্যু ঘটে। ফলে ওই গৃহবধূ রেখা বেগম মানসিকভাবে কিছুটা ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে। তার কোলের সন্তান মৃত্যুর পর তার জীবনে নেমে আসে অন্ধকার। ফলে সদা হাস্যজ্বল ওই মেয়েটি অনিয়মিত খাওয়া, ঘুম ও বিশ্রামের ফলে দিন দিন তার দেহে নানা রোগ বাসা বাঁধে। একপর্যায়ে ওই গৃহবধূর মলদ্বারে পাইলস রোগে আক্রান্ত হয়।

গ্রাম্য লোকজনের কথামত তথাকথিত এক হাতুড়ে কবিরাজের চিকিৎসায় রেখা মলদ্বারে ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হয়। এরপর রেখাকে বগুড়ায় পিত্রালয়ে নিয়ে এসে তার আত্মীয়-স্বজন। চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয় বগুড়ার শজিমেক হাসপাতালে। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। গত ৭/৮ মাস চিকিৎসার পর অবশেষে গতকাল শুক্রবার ওই গৃহবধু মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।

No comments

Leave a Reply

sixteen + three =

সর্বশেষ সংবাদ