Menu

সোনাতলায় জমি ভাগবাটোয়ারা নিয়ে বিরোধঃ স্কুল শিক্ষিকাকে মারধর করলো ভাই-ভাবী

সোনাতলা সংবাদদাতাঃ বগুড়ার সোনাতলায় বাবার সম্পত্তির ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে এক স্কুল শিক্ষিকা ভাই ভাবি কর্তৃক মারধরের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বালুয়া ইউনিয়নের দক্ষিন আটকড়িয়া গ্রামে। এঘটনায় ২০ মে বৃহস্পতিবার সকালে শিক্ষিকা রুখছানা ৯৯৯- এ ফোন করে অভিযোগ করেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সোনাতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম রেজা।

শিক্ষিকা রুকছানা জানান, তার বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। ২০১৭ সালে বাবা মারা যাওয়ার পর থেকে বড় ভাই গোলাম রব্বানী ও ছোট ভাই গোলাম রাসুল বাবার সম্পত্তি ভোগ করতে থাকে। বাবা বেঁচে থাকাকালীন বড় ভাই বাড়ির বাইরে থাকতেন। বাবা মারা যাওয়ার পর তিনি বাড়িতে এসে উঠেন। তারপর থেকে ভাই বোনের মধ‍্যে অমিল চলে আসে। এবং তাদের বাড়ির সম্পত্তি দুই ভাই মৌখিকভাবে ১১ শতকের ওপর বাড়ির অংশ ভাগ করে নেয়। তিনি আরও জানান বাবার বাড়ি থেকে স্কুলে যাতায়াত করায় তাকে নানাভাবে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার চেষ্টা করছিলেন দুই ভাই। কয়েকদিন আগে তার এক ভাই তার বাথরুম বন্ধ করে দেয়। পরে তিনি তার প্রয়োজনীয় কাজ পার্শ্ববর্তী বাড়িতে গিয়ে করেন। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে বাড়ির টিউবওয়েলে বাসনপত্র পরিস্কার করার সময় গোলাম রব্বানী ও তার স্ত্রী পপি বেগম তাকে নানাভাবে গালিগালাজ শুরু করেন।

এ সময় তিনি তার ভাইয়ের কাছে বাবার সম্পত্তির ভাগ চান। জায়গা দিলে তিনি অন্যত্র চলে যাবেন। এ কথা বলায় ভাই-ভাবি মিলে তাকে গালি-গালাজ ও মারপিট করেন বলে তিনি জানান । এ সময় তিনি ৯৯৯-এ ফোন করে সহায়তা চান। ফোন পাওয়ার পর সোনাতলা থানার এসআই আব্দুর রহিম ১০টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
এঘটনা তার ভাই গোলাম রব্বানী বলেন ভাই হয়ে বোনকে কিভাবে সম্ভব লাঞ্চিত করা। সমাজে আমাকে হেয় প্রতিপুর্ণ করা প্রতিহিংসা মাত্র ইতি মধ‍্যে বোনের ৪টি জায়গায় বিবাহ হয়। কোথাও সে দীর্ঘ স্থায়ী নয়। আমরা বোনের অংশ জমি মৌখিক ভাবে বেড় করে দিয়েছি এবং একটি রুমসহ থাকার বাসস্থানও করে দিয়েছি। তার পরেও সে জমি দাবি করে আসছে।

এঘটনায় সোনাতলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল করিম রেজা ঘটনার বলেন, ঘটনাটি পারিবারিক ভাইবোনের বিষয়। এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর একটি অভিযোগের দিয়েছে । আমরা অবশ্যই তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

সর্বশেষ সংবাদ