Menu

সোনাতলায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র মারপিটে আহত ৫, থানায় অভিযোগ 

সোনাতলা সংবাদদাতাঃ বগুড়া সোনাতলা উপজেলার তেকানীচুকাইনগর ইউনিয়নের মহেশপাড়া গ্রামের তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মারপিটের ঘটনা ঘটেছে।  এতে উভয়পক্ষের ৫জন আহত হয়।
জানাযায়, ওই গ্রামের মৃত বাছর মন্ডলের ছেলে রঞ্জু মিয়ার সাথে পূর্বের কথা কাটাকাটির জেরে একই এলাকার বাদশা মন্ডলের ছেলে বাবু মিয়া,  বাদশা মন্ডল, মৃত ইদ্রিস মন্ডলের ছেলে রশিদুল ইসলামের সাথে গত ২৪-০৫-২১ইং তারিখে বিকেল ৪টার দিকে মারপিটের ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনায় রঞ্জুর মা রহিমা বেগম থানায় বাদী হয়ে বাবু মিয়া সহ ৯জনের নাম উল্লেখ করে একটি অভিযোগ করেন।
অভিযোগ ও সরেজমিন সূত্রে জানাযায়, ঘটনার দিন ভ্যানগাড়ী যোগে রঞ্জু মিয়া স্থানীয় বাজারে যাওয়ার সময় প্রতিপক্ষ তার গতিরোধ করে।
এসময় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে বাবু মিয়া, রশিদুল সহ তাকে মারপিট করতে থাকে। টেরপেয়ে রঞ্জুর ভাই লেবু মিয়া আগায়া গেলে তাকেও বেধরক মারপিট করতে থাকে।  এসময় লেবুর বড় ভাই নিজাম ও তার  স্ত্রী মাইয়া বেগম আগায়া গেলে তাদের কেউ মারপিট করেন প্রতিপক্ষের লোকজন।
এতে রঞ্জু মিয়া, মাইয়া বেগম, লেবু মিয়া গুরুত্বর আহত হলে তাদেরকে উদ্ধার করে সোনাতলা হাসপাতালে ভর্তি করায় তাদের স্বজন। এদের মধ্যে রঞ্জু ও লেবুর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক  উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে প্রেরন করেন।
অভিযোগ কারী রহিমা বেগম জানান, প্রতিপক্ষের লোকজন হাতে বাঁশের লাঠি, লোহার রড, ধারালো ছোরা,  হাসুয়া নিয়ে আমার ছেলেকে হত্যার উদ্দশ্যে আক্রমন করে আহত করে।  আমি এর দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই।
এব্যাপারে প্রতিপক্ষের ২জন আহত হয়েছে বলে জানায় সেলিনা বেগম।  সে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,  উভয়পক্ষের মধ্যে মারপিট হয়েছে।  রঞ্জু আমাকে বিভিন্ন অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ও লাঠি দিয়ে মারার চেষ্টা করে।  ঘটনার সময়  আমার স্বজন রাকিব ও পুতলি আহত হয়।
সোনাতলা থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল করিম জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

No comments

Leave a Reply

10 + 14 =

সর্বশেষ সংবাদ