Menu

সোনাতলায় দীর্ঘ ১৯ বছরেও ট্রিপল মার্ডারে ক্লু ও পরিচয় পায়নি পুলিশ!

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (বদিউদ-জ্জামান মুকুল, সোনাতলা): বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার পল্লীতে একই রাতে কিশোর ও যুবক সহ তিন ব্যক্তিকে গলা কেটে দুর্বৃত্তরা হত্যা করে রেল লাইনের উপর ফেলে গেলেও আজ তাদের পরিচয় কিংবা হত্যাকারীদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনতে পারেনি পুলিশ।

২০০১ সালের জুলাই মাসের বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের মধ্য দিঘলকান্দী গ্রামের নিকটে চকচকিয়া রেল ব্রীজের উপর ও রেল লাইনের পশ্চিম ও পূর্ব পাশে একই রাতে দুর্বৃত্তরা কিশোর ও যুবক সহ তিন ব্যক্তিকে গলা কেটে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে যায়।

পরদিন সকালে স্থানীয় লোকজন জমিতে পাট কাটতে গেলে তিন ব্যক্তির লাশ তিনটি স্থানে পড়ে থাকতে দেখে। পরে পুলিশ অজ্ঞাত ওই তিন ব্যক্তির লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্ত শেষে বগুড়া আঞ্জুমান মফিদুলে লাশ হস্তান্তর করে।

এ ঘটনার দীর্ঘ প্রায় ১৯ বছর পেরিয়ে গেলেও আজও ওই হত্যা কান্ডের রহস্য রহস্যই থেকে গেল। থানা পুলিশ উদ্ধার করতে পারল না হতভাগা ওই তিন ব্যক্তির পরিচয়। এমনকি ওই হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত কাউকে আজ অবধি পুলিশ শনাক্ত কিংবা গ্রেফতার করতে পারেনি।

এ বিষয়ে স্থানীয় লোকজন জানান, জমিজমা বিরোধের জের কিংবা পূর্ব শত্রæতার জের ধরে ভাড়াটিয়া দুর্বৃত্তরা দূরের কোন এলাকা থেকে ওই তিনজনকে কৌশলে ট্রেনে নিয়ে এসে ভেলুরপাড়া ষ্টেশনের নিকটে তাদেরকে নিশৃংসভাবে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে যায়।

আলোচিত ওই ট্রিপল মার্ডারের ক্লু পুলিশ দীর্ঘদিনেও উদ্ধার করতে ব্যর্থ হয়েছে।

এ বিষয়ে সোনাতলা থানার ওসি আব্দুল্লাহ মাসউদ চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বিষয়টি ১৯ বছর পূর্বের। এ বিষয়ে তার জানার কথা নয়।

No comments

Leave a Reply

20 − fourteen =

সর্বশেষ সংবাদ