Menu

সোনাতলায় দুই সন্তানের জননী স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগঃ হত্যাকারীকে রক্ষায় তৎপর একটি চক্র

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (লতিফুল ইসলাম, সোনাতলা): ঢাকার আব্দুল্লাহপুর মাদারবাড়ীতে বসবাসকারী সোনাতলার ইতি বেগমকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। ইতি সোনাতলা উপজেলার সুজাইতপুর গ্রামের শিপন মিয়ার স্ত্রী। মৃত ইতির মা জাহানারা বেগম জানিয়েছেন, ইতি দুই সন্তান নিয়ে তার স্বামী শিপন মিয়ার সাথে আব্দুল্লাহপুর মাদারবাড়ীতে ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছিল। তারা উভয়েই একটি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরীতে কর্মরত ছিল। শনিবার ইতির সাথে তার স্বামীর ঝগড়া হয়। একইদিন সন্ধ্যায় ইতিকে মারপিট করে মুমূর্ষু অবস্থায় উত্তরা আধুনিক মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায় স্বামী শিপন মিয়া। কর্তব্যরত ডাক্তার সেখানে ইতিকে মৃত ঘোষণা করে। তড়িঘড়ি করে শিপন ঢাকা থেকে লাশটি নিয়ে সোনাতলায় সুজাইতপুর গ্রামে তার নিজ বাড়ীতে রেখে পালিয়ে যায়। পরে সোনাতলা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি থানায় নিয়ে যায় এবং পরে পোস্ট মর্টেমের জন্য মর্গে প্রেরণ করে। মৃত ইতির মা সাঘাটা উপজেলার জুমারবাড়ী ইউনিয়নের মামুদপুর গ্রামের জাহানার বেগম জানান, আমার মেয়ের গলায়, বাম ঘাড়সহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আমার মেয়েকে আমার জামাই মেরে ফেলেছে, আমি মেয়ে হত্যার বিচার চাই।
এদিকে অস্বাভাবিকভাবে ও রহস্যজনকভাবে এ মৃত্যুর ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে তৎপর রয়েছে একটি বিশেষ মহল। দুই লাখ ২০ হাজার টাকার বিনিময়ে বিষয়টি রফা-দফার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে জনৈক ইউপি সদস্য।
এ ব্যাপারে সোনাতলা থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল মাছউদ চৌধুরী জানান, আমরা লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছি। রিপোর্ট অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট থানা প্রয়োজনীয় আইনানূগ পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

No comments

Leave a Reply

4 × 5 =

সর্বশেষ সংবাদ