Menu

সোনাতলায় পুর্ব শত্রুতার জের ধরে বসতবাড়িতে হামলা ও ভাংচুরঃ স্কুলছাত্রীসহ আহত-৩

সোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধি ঃ বগুড়ার সোনাতলায় পুর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রকাশ্য দিবালোকে এসএম আব্দুল হাদি নামের এক ব্যক্তির উপর অতর্কিত হামলা ও বসতবাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় প্রতিপক্ষের মারধরে আব্দুল হাদি,তার স্ত্রী ও তার মেয়ে দশম শ্রেনীতে পড়ুয়া স্কুল ছাত্রী গুরুতর আহত হয়েছে।
জানাযায়, উপজেলার পৌরসস্থ ৩ নং ওয়ার্ড গড়ফতেপুর এলাকার মৃত আঃ সাদেক ওরফে মোতরাজ আলীর ছেলে আব্দুল হাদী’র সাথে একই এলাকার মোঃ ইদ্রিস আলী সরকার গংদের সাথে বসত বাড়ির জায়গা নিয়ে দির্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছিলো। এরই জেরধরে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে ইদ্রিস আলীর নেতৃত্বে তার পাঁচ ছেলে ও বহিরাগত লোকজনসহ হাতে দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিশোটা নিয়ে আব্দুল হাদিকে হত্যার উদ্দেশ্যে প্রকাশ্য দিবালোকে তার বসতবাড়িতে অতর্কিত হামলা চালায়। এঘটনায় হামলার স্বিকার আব্দুল হাদি জিবন রক্ষার্থে চিৎকার শুরু করলে তার স্ত্রী ও দশম শ্রেনীতে পড়ুয়া মেয়ে তাকে বাচাতে এগিয়ে এলে প্রতিপক্ষের লোকজন তাদেরকে বেধরক মারধর করে এবং বসতবাড়ি ভাংচুর করে পালিয়ে যায়। এতেকরে আব্দুল হাদি, তার স্ত্রী ও মেয়ে গুরুতর আহত হলে স্থানীয় লোকজন তাদেরকে উদ্ধার করে।
এবিষয়ে আহত আব্দুল হাদি জানান, আমার পিতা মৃত মাওলানা আঃ সাদেক ওরফে মোতরাজ আলী প্রতিপক্ষ ইদ্রিস আলী সরকার ১৯৯১ইং- সালে সারে ৮ শতক জমি এ্যাওয়াজ বদল অর্থাৎ বিনিময় পত্র দলীল মুলে নেয় (দলিল নং-৩৩০০)। ঠিক তখন থেকেই আমি/আমরা উক্ত স্থানে ঘর নির্মান করে পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করে আসছি। ঐসময় তারা বিষয়টি নিয়ে গোলযোগ সৃস্টি করে। ফলে উভয়ের মধ্যে দন্দ থেকেই যায়। এদিকে দির্ঘবছর পর ২০১৭ইং- সালে এলাকার মসজিদ নির্মান কাজের সময় স্থানীয় পৌর মেয়র মহোদ্বয় সংরক্ষিত কাউন্সিলর ও এলাকার বহুলোকের উপস্থিতিতে সার্ভেয়ার দ্বারা মাপযোগের মাধ্যমে বিষয়টি মিমাংশা করেন। কিন্তু মাঝখানে দির্ঘসময় অতিবাহিত হলেও বর্তমান সময়ে প্রতিপক্ষের লোকজন সেটি অমান্য করে বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রকাশ্যে তাদের উপর হামলা চালিয়ে মারধর করে গুরুতর জখমসহ বসতবাড়ি ভাংচুর করে। আব্দুল হাদি পেসায় একটি ঔষধ কোম্পানীর রিপ্রেজেনটিভ ছিলেন। এঘটনায় তার ঘরে রাখা বিভিন্ন প্রজাতের ঔষধ ও ঘরের আসবাবপত্র সহ প্রায় ৩ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে বলেও জানান আব্দুল হাদি। এসময় হামলার সি¦কার হয়ে তিনি বিষয়টি তাৎক্ষনিক থানা পুলিশকে অবগত করেন। এদিকে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এবং কোনধরনের বিশৃঙ্খলা নাকরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে উভয় পক্ষকে নির্দেশনা প্রদান করে। এবিষয়ে এলাকার স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা বললে অনেকেই ঘটনার সত্যতা স্বিকার করে এর তিব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেন।
এবিষয়ে ইদ্রিস সরকারের ছেলে জিয়া জানায়, বিষয়টি মিমাংশার জন্য ইতিপুর্বে পৌরসভায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে। কিন্তুু তারপরও সেখানে তারা ঘর নির্মান করেছে।  একারনে আমরা তাদের নির্মানাধীন ঘর ভেঙ্গে দিয়েছি।

No comments

Leave a Reply

13 − 4 =

সর্বশেষ সংবাদ

নির্বাচিত সংবাদ