Menu

সোনাতলায় বসতবাড়ির জায়গা নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, মারপিট ভাঙচুরঃ আহত- ১০

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (নিজস্ব প্রতিবেদক): বগুড়ার সোনাতলায় আজ শনিবার (১৭ আগষ্ট) বসত বাড়ির জায়গা জমি নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে মারপিটের ঘটনা ঘটে। এ সময় বসত বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট ও মারপিটের ঘটনা ঘটে। এতে করে মহিলাসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়। আহতদেরকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

গতকাল সকাল আনুমানিক সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের সোনাকানিয়া গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড (বিজিবি) সদস্য সাহেব আলীর পরিবারের সাথে একই বাড়ির মৃত ওসমান গনি আকন্দের পুত্র আব্দুল করিম ও কাটু আকন্দের পুত্র টুংকুদের সাথে দীর্ঘদিন যাবত বাড়ির জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এরই একপর্যায়ে গতকাল শনিবার সকাল ৮টায় স্থানীয় গুড়াভাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রোস্তম আলী মন্ডল ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে মিমাংসার জন্য উভয়পক্ষকে নিয়ে বসেন। এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে আলাপ-আলোচনার একপর্যায়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এবং হাতাহাতিতে রূপ নেয়।

এ ঘটনার জের ধরে আব্দুল করিম ও তার লোকজন অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্য সাহেব আলীর বাড়িতে গিয়ে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটায়। এ সময় ওই বাড়ির লোকজন প্রতিপক্ষকে বাধা দিলে তারা ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে প্রতিপক্ষের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। এ সময় তাদের মারপিটে সোনাকানিয়া গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তার মন্ডলের পুত্র আব্দুল জলিল (৬৫), খয়বর আলী (৫২), খয়রাতজ্জামান (৫৫), সাইফুল ইসলাম (৪৫), জুয়েলের স্ত্রী রাজিয়া সুলতানা উইন (৩০), বয়ড়া দাখিল মাদরাসার ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থী রকিব মিয়া (১৫), সাহেব আলী (৬৫)সহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়। আহতদেরকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে রাজিয়া সুলতানা উইন বেগমের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এ বিষয়ে স্থানীয় জোড়গাছা ইউপি চেয়ারম্যান রোস্তম আলী মন্ডল জানান, তাদের দু’পক্ষের মধ্যে বসত বাড়ির ওই জমি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছে। বিরোধ নিরসনে দু’পক্ষকে গতকাল সকালে ডাকা নিয়ে আলোচনার জন্য বসা হলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এ বিষয়ে অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্য সাহেব আলী জানান, আব্দুল করিমের পিতার নিকট থেকে বাড়ির জমি অনেক পূর্বেই ক্রয় করি। বর্তমানে সেই জমিটি আমার দখলে রয়েছে। সেই জমির উপর নির্মিত ঘরবাড়ি ভাঙচুর করেছে।
এ বিষয়ে সোনাতলা থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মাসউদ চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ঘটনা শোনার সাথে সাথে আমিসহ ১২ জন পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। গতকাল বেলা ২টায় এ রিপোর্ট লেখা অবধি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

No comments

Leave a Reply

five × five =

সর্বশেষ সংবাদ