Menu

সোনাতলায় ভিজিডি কার্ডের সঞ্চয়ের টাকা ফেরত পেতে জনপ্রতিনিধিদের দ্বারে দ্বারে অসহায় ভাই-বোন

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (স্টাফ রিপোর্টার): বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নে ভিজিডি কার্ডের চাল গ্রহনের জন্য নেওয়া সঞ্চয়ের টাকা ফেরত পেতে জনপ্রতিনিধিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে স্বামী পরিত্যাক্তা রেবেকা বেগম ও তার ভাই রন্টু মিয়া। আজ সোমবার বিকেলে অনলাইন পত্রিকা সোনাতলা সংবাদ ডটকম এর অফিসে এসে সঞ্চয়ের টাকা চাওয়ার কারনে জনপ্রতিনিধিদের কর্তৃক নিগ্রহের কথা জানান।
স্বামী পরিত্যাক্তা রেবেকা বেগম বলেন, ২০১৬ সালে ভিজিডি কার্ড প্রাপ্ত হয়ে ২০১৭ সালের জানুয়ারী থেকে প্রতি মাসে ৩০ কেজী করে চাল দেওয়া হয় জোড়গাছা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে। প্রতিবার চাল দেওয়ার সময় ২০০টাকা করে সঞ্চয়ের টাকা জমা নেওয়া হয়। গত ডিসেম্বর মাসেও ভিজিডির চাল দেওয়ার সময় ২০০টাকা সঞ্চয় গ্রহন করে। এতে ২৪মাসে ৪হাজার ৮শ’ টাকা জমা হলেও গত ৬ মাসেও ওই সঞ্চয়ের টাকা দেওয়া হয়নি।
তিনি বলেন, ভাই ভ্যানচালক রন্টু মিয়ার উপার্জনে চলে সংসার। সেই ভাইকে নিয়ে চেয়ারম্যান মেম্বারদের বাড়িতে বাড়িতে ঘুরেও সঞ্চয়ের টাকা পাইনি। এমনকি তারা বিভিন্ন ধরনের নিগ্রহের শিকার হয়েছেন বলে জানান। অসহায় স্বামী পরিত্যাক্তা রেবেকা বেগম বলেন, নিজেদের দের শতাংশ বাড়ির জায়গা ছাড়া মাথা গোঁজার জন্য কোনও ঘর-বাড়ি ছিলনা। এরশাদ সরকারের শাসনামলে একটি টিনসেট ঘর করে দেওয়া হয়। এখন ঘরটি ভেঙ্গে টিন ফুটো হয়ে গেছে। তবুও জোড়াতালি দিয়ে ওই ঘরেই তাদের থাকতে হচ্ছে। তিনি বলেন, এত কষ্টকরে দেওয়া সঞ্চয়ের টাকা তাহলেকি ফেরত পাবনা?
এব্যাপারে জোরগাছা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রোস্তম আলী মন্ডলের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও সংযোগ পাওয়া যায়নি।

No comments

Leave a Reply

16 − 6 =

সর্বশেষ সংবাদ