Menu

সোনাতলায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে মাটি কাটা বন্ধ, পরের দিন আবার শুরু!

সোনাতলা সংবাদ ডটকম (স্টাফ রিপোর্টার): বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের মধ্য দিঘলকান্দী গ্রামের আমিনুল ইসলামের পুকুর থেকে মাটি বিক্রি করা হচ্ছে। ওইদিন ট্রাক ও ট্রলি যোগে প্রায় ৪/৫শতাধিক গাড়ি নিয়ে যাওয়া হয়েছে। মধ্য দিঘলকান্দী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সড়কের পাশে^ থেকে ভেকু দিয়ে মাটি কাটায় হুমকির মধ্যে পড়েছে ওই সড়ক ও ৪/৫টি বসতবাড়ি।

মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) সোনাতলা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) কাবেরী জালাল ভ্রাম্যমান আদালত নিয়ে গিয়ে মাটি কাটা বন্ধ করে দেন। স্থানীয়রা জানান, এসময় নির্বাহী মেজিষ্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভুমি) কাবেরী জালাল ভেকুর চাবি নিয়ে যান। এরপরের দিন অর্থাৎ বুধবার (২১ এপ্রিল) সকাল থেকে আবারও শুরু হয় ভেকু দিয়ে মাটি কর্তন। তবে এলাকার লোকজন জানিয়েছে, প্রশাসনকে ম্যানেজ করেই ভেকু দিয়ে মাটি কাটা শুরু করা হয়।

জানাগেছে, বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের মধ্য দিঘলকান্দী গ্রামের আমিনুর ইসলাম মধ্য দিঘলকান্দী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রেল লাইন সড়কের পাশে^ প্রায় ৩ বিঘা জমির উপর প্রায় ১৫ বছর পূর্বে পুকুর খনন করে। এরপর ওই সড়ক দুটির মাটি ধ্বসে যায় কয়েকবার। কিন্তু কয়েকবার স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ওই সড়ক দুটি মেরামত করা হয়।

এবার ওই পুকুর গভীর করে খননের জন্য গাবতলী উপজেলার বাঙ্গাবাড়ি এলাকার এক ভাটা ব্যবসায়ীর নিকট মাটি বিক্রি করে।

সোনাতলা থানার ওসি রেজাউল করিম রেজা বলেন, ওখানে নির্বাহী মেজিষ্ট্রেট থানা পুলিশ নিয়ে গিয়েছিলেন। তবে কি হয়েছে তিনি জানেন না। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট থেকে তিনি জানতে বলেন।

সোনাতলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাবেরী জালাল বলেন, মাটি কাটার বিষয়ে নিষেধ করা হয়েছে। তার পরেও যদি মাটি কাটে তাহলে আমি বিষয়টি দেখছি।

এবিষয়ে জানতে সোনাতলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া আফরিনকে বার বার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

No comments

Leave a Reply

thirteen + thirteen =

সর্বশেষ সংবাদ