Menu

সোনাতলায় মামলার তদন্তকাজে পুলিশকে বাধা দেয়ায় আটক-২

সোনাতলা(বগুড়া)প্রতিনিধিঃ বগুড়ার সোনাতলায় মামলার তদন্তের সময় পুলিশের সাথে অসদআচরন ও উক্ত কাজে বাধা প্রদানে দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে থানা পুলিশ।
জানাযায়, উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের হাঁসরাজ গ্রামের মৃত ইনছার আলীর ছেলে অবসর প্রাপ্ত পুলিশ সদস্য মোঃ খাতের আলীর সাথে একই এলাকার মৃত সিরাজুল ইসলামের পরিবারের লোকজনের ৮শতক ফসলি জমি নিয়ে দির্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছিলো। উক্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে ইতিপুর্বে মোঃ খাতের আলী বাদি হয়ে মৃত সিরাজুল ইসলামের তিন ছেলে মোঃ রেজাউল করিম রেজা, সফিকুল ইসলাম সাবু ও সাজেদুর রহমান জুয়েল সহ এলাকার মোট ১৫জনকে আসামি করে সোনাতলা থানায় পরপর কয়েকটি অভিযোগ দায়ের করেন এবং গত ১৭’ই ডিসেম্বর ২০২০ইং তারিখে ১৪৪/১৪৫ ধারামতে এডিএম কোর্টেও একটি মামলা করেন তিনি। তার নোটিস যথাবিহি কোর্ট এবং থানা হতে তার দায়ের করা ৮শতক ফসলি জমির উপর নিষেধাজ্ঞাও জারি রয়েছে। কিন্তু তার পরও বিবাদিগন সেই নিষেধাঙ্গা অমান্য করে উক্ত জমি জোরপুর্বক দখলের চেষ্টা করলে তিনি পুনরায় থানা পুলিশের আশ্রয় নেন। এদিকে বিবাদিগন কর্তৃক তার চাষাবাদ জমিতে পানি দেয়ার ড্রেন বন্ধ করে দেয়ায় তিনি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে গত ২৮’শে জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সোনাতলা থানা পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করতে ঘটনাস্থলে গেলে বিবাদিগন ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের সাথে অসদআচরন ও তাদেরকে উদ্দেশ্য করে অশ্লিল ভাষা ব্যবহার করে। সেইসাথে দাপট দেখিয়ে উক্ত কাজে বাধা প্রদান করলে এসময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বিবাদিগনের দুইজনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। আটককৃতরা হলো, মৃত সিরাজুল ইসলামের দুই ছেলে সফিকুল ইসলাম সাবু ও সাজেদুর রহমান জুয়েল।
এবিষয়ে সোনাতলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রেজাউল করিম রেজা’র সাথে কথা বললে তিনি জানান, অভিযোগমুলে বিষয়টি তদন্ত করতে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। এসময় উত্তেজিত অবস্থায় পুলিশের সাথে অসদআচরন করলে ঐ দুই ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। এদিকে আটককৃত ব্যক্তিরা তাদের ভুল স্বিকার করলে পরবর্তিতে এমন কর্মকান্ড না করার সর্তে মুচলেকার মাধ্যমে তাদেরকে ঐ এলাকার (মধুপুর ইউপি) চেয়ারম্যানের জিম্মায় দেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

No comments

Leave a Reply

seventeen − eleven =

সর্বশেষ সংবাদ