Menu

সোনাতলায় মেয়রের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনঃ উপজেলা চেয়ারম‍্যানের সরকারী বাসভবনে হামলার অভিযোগ

আব্দুর রাজ্জাক, সোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ ১৮ জানুয়ারী মঙ্গলবার সকালে বগুড়ার সোনাতলায় পৌর কাউন্সিলর, বণিক সমিতি ও পৌর এলাকার মহিলাদের উদ‍্যেগে মেয়র আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম নান্নুর মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করে।

শেষে মানববন্ধন কারীরা উপজেলা প্রশাসনিক ভবনের ভিতর রাস্তা দিয়ে মিছিল নিয়ে যাওয়ার পথে উপজেলা চত্তরে পুলিশ বাধা দিলেও মহিলারা পুলিশের বাধা অতিক্রম করে থানা মোড় দিকে যেতে থাকে।

এসময় মিছিলের পিছনে থাকা কতিপয় দুবৃর্রা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম‍্যান এ‍্যাড. মিনহাদুজ্জামান লিটনের সরকারী বাসভবনে ইট পাটকের নিক্ষেপ করে। এতে ভবনের জানালার গ্লাস ভাংচুর করে বলে অভিযোগ করেন উপজেলা চেয়ারম‍্যান অ্যাড. লিটন ।

তিনি জানান, মিছিলকারীরা অতর্কীত ভাবে আমার বাসায় ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে জানালা দরজা গ্লাস ভাংচুর করেছে। এদিকে সংবাদ পেয়ে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা হামলাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে পাল্টা বিক্ষোভ মিছিল বের করে।

মিছিলটি মেয়রের বাসা অতিক্রমকালে বাক প্রতিবন্ধি এক কর্মী অফিসে দিকে একটি ঢেল নিক্ষেপ করে। এরপর মিছিলকারীরা পুরাতন দালাল অফিসের সামনে পান দোকানীকে উপজেলা চেয়ারম‍্যানের বাসায় হামলাকারীদের একজনকে শনাক্ত করতে পেরে তার উপর চড়াও হয়। এসময় পুলিশ ও অন‍্যান‍্য নেতাকর্মীরা চড়াও কারিদের শান্ত করে।
এবিষয়ে সোনাতলা থানা অফিসার ইনচার্জ রেজাউল করিম রেজার কাছে মাবনবন্ধনের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মানববন্ধন বিষয়ে আমরা জ্ঞাত ছিলেম না সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ প্রশাসন উপস্থিত হয়। মাবনবন্ধন শেষ হয়ে যাওয়ার পর হঠাৎ করেই মানবব্ননের নারী পুরুষ একটি মিছিল পুলিশি বাধা অতিক্রম করে উপজেলা চত্তর দিয়ে যেতে থাকে।

পরে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম‍্যান এ‍্যাড. মিনাহাদুজ্জামান লিটন মহোদয় তার সরকারী বাসভবনে ইট পাটকেল নিক্ষেপ ও জানালা দরজা ভাংগার বিষয়ে আমাকে মৌখিক অভিযোগ করেছেন। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব‍্যাবস্থা গ্রহন করা হবে। এদিকে সন্ধ‍্যায় অতিরিক্ত পুলিশ টহল দিতে দেখা গেছে।

No comments

Leave a Reply

seventeen − sixteen =

সর্বশেষ সংবাদ